শনিবার, ডিসেম্বর ৩Dedicate To Right News
Shadow

জাবিতে চারদফা দাবিতে সাংবাদিকদের মানববন্ধন

Spread the love
  • জাবি প্রতিনিধি

আজ ২ সেপ্টেম্বর জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে সাংবাদিক নির্যাতনের প্রতিবাদ ও বিচারের দাবিসহ চারদফা দাবি জানিয়ে মানববন্ধন করে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিক মহল এবং বিচারের জন্য ২৪ ঘন্টা সময় বেঁধে দেন বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে।

মানববন্ধনে সমর্থন জানিয়ে বক্তব্যে ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি রাকিবুল হক রনি বলেন, “সাংবাদিকরা বিবেকের মতো কাজ করে বলে সবসময় সব প্রসাশনের বিরক্তির কারণ হয়, যেখানে একজন সাংবাদিক নির্যাতন হয়, এর অর্থ কোন শিক্ষার্থী নিরাপদ নয়। দীর্ঘ একমাসে প্রশাসন এর সমাধান‌ না করলেও, কিছু দিন আগে ঘটে যাওয়া ছাত্র লীগের দুই পক্ষের সমস্যায় তাৎক্ষণিকভাবেই তদন্ত কমিটি গঠন করে এবং দ্রুত বহিষ্কার জারি করেন। এর বিচার না হওয়ার কারন ক্ষমতাসীন ছাত্র সংগঠনের উপর প্রশাসনের লেজুড়বৃত্তি। এর দ্রুত তদন্ত করে শাস্তির দাবি করছি এবং অন্যান্য দাবিগুলোর কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়ার তাগাদা দিচ্ছি।”

বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিক সমিতির সভাপতি বেলাল হোসেন বলেন, “বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার মূল উদ্দেশ্য গনতন্ত্র চর্চার একটি মসৃণ পথ তৈরি করা। আর এ গনতন্ত্রের অন্যতম স্তম্ভ হলো গণমাধ্যম ও সাংবাদিকরা। পরিতাপের বিষয় এ সাংবাদিকরা সবসময়ই নির্যাতিত আর নিপিড়ীত হয়ে আসছে। গনতান্ত্রিক মূল্যবোধ প্রতিষ্ঠায় যখন সাংবাদিকরা রাস্তায় নেমে আসে তখন বুঝতে হবে পুরো একটা সিস্টেম ভেঙে পড়েছে।”

তিনি আরো বলেন, “নির্যাতন ঘটনার রাতে ছাত্রলীগ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে তাদের ৮ জন কর্মীকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করে। কিন্তু দিনের আলোর মত পরিষ্কার ঘটনার কোনো সত্যতা নাকি তদন্ত কমিটি খুঁজে পায় নি।’
প্রশাসন কাদের স্বার্থ রক্ষায় এমন কাজ করেছে? সে প্রশ্ন তিনি প্রশাসনের কাছে রাখতে চান । যদি ২৪ ঘন্টার মধ্যে যদি বিচার না হয় তাহলে আগামী রবিবার নতুন প্রসাশনিক ভবন অবরুদ্ধ করে কর্মসূচি এগিয়ে নেওয়া হবে।”

উল্লেখ্য গত মাসের ২ রা আগস্ট রাত্রে বিশ্ব কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হলে “সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যম” বিভাগের ২য় বর্ষের ছাত্র (৪৯তম আবর্তন) এবং একটি অনলাইন পোর্টালের বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদককে অতিথি কক্ষে ডেকে নিয়ে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করে হল ছাত্রলীগের কিছু সিনিয়ররা। সেখানে তাৎক্ষনিকভাবে তথ্য পেয়ে সাংবাদিক ও বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা যায় এবং এর সত্যতা পেয়ে ছাত্রলীগ থেকে এরসাথে জড়িতদের অবাঞ্চিত ঘোষণা করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *