শনিবার, এপ্রিল ১৩Dedicate To Right News
Shadow

“যৌথ পূজা মেলা ২০২২” শুরু হলো আজ

Spread the love

আসন্ন দূর্গাপূজা সামনে রেখে হিল ই-কমার্স সোসাইটি ও ঝিকরগাছা ই-প্লাটফর্ম এর যৌথ আয়োজনে শুরু হয়েছে যৌথ পূজা মেলা ২০২২। অনলাইনে এ মেলা চলবে ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে ২৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। বিপুল আনন্দ উদ্দীপনার সাথে শুরু হয়েছে মেলা। এবারও পাহাড় সমতলের দারুণ মেলবন্ধন দেখা যাচ্ছে। মেলায় অংশগ্রহণকারী উদ্যোক্তারা হলেন-

শামীমা হক, স্বপ্না চাকমা, তামান্না রোমান, খাদিজা বিনতে তাহের, যুথী সাহা শশী, ডলি ডল, নিমা চাকমা, রীমা চৌধুরী, ননিকা চাকমা, তাবাসসুম সেঁজুতি, এমেলি চাকমা, জিনাত রহমান, কানিজ রুমকি,মনি রানী চৌধুরী, হাসনা হেনা, মাসুদ রানা, মাফরুহা চৌধুরী, জান্নাতুল ফেরদৌস দীপা, বি.জামান রিপিট, মনি পাহাড়ী, অনামিকা দত্ত, ঊর্মি গোস্বামী নীড়, মাহফুজুল হক, জবা তঞ্চঙ্গ্যা,পারু চাকমা,রুবাইয়া সুলতানা, ফাতেমা তুশি,রুবিনা বেগম,
ডালিয়া আফরোজ,রূপসী চাকমা, জান্নাত নিতু, হুমায়েরা ঐশী, শারমিন রহমান, সাবিনা হীরা, মারী সাহা, এস এফ জ্যোতি, আফরিন বৃষ্টি, ইতিকা চাকমা, লায়লা কামরুন নাহার,তানিয়া আক্তার, তানজিনা মুনিয়া, প্লাবনী ইয়াসমিন, ময়না বেগম।

মেলায় অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে পাহাড়ের উদ্যোক্তা স্বপ্না চাকমা বলেন- ” পাহাড়ের পাশাপাশি হিল এর মাধ্যমে সমতলেও আমার বেশকিছু ক্রেতা তৈরি হয়েছে। এবার যেহেতু দুই গ্রুপ মিলে এই আয়োজন সেহেতু পরিসরটা আরও বড় হবে বলে আশাবাদী। ” এ বিষয়ে সমতলের উদ্যোক্তাদের সাথেও কথা হয়। বগুড়া থেকে উদ্যোক্তা সেঁজুতি বলেন- “এমন আয়োজন বারবার হোক। এখানে সেল এর চিন্তা করে যুক্ত হইনি। সবার সাথে যে একটা নেটওয়ার্ক তৈরি হয় মেলার মাধ্যমে সেটাই আমার কাছে মুখ্য। হিলের সকল কনসেপ্ট আমার ভালোলাগে। মনি পাহাড়ী আপুর আইডিয়াগুলো সবসময় নাড়া দেয়। অনলাইনের যৌথ মেলাও একটা মাইলফলক হয়ে থাকবে বলে বিশ্বাস।”

১১ দিনব্যাপী এ পূজা মেলা রীতিমতো উৎসবের আমেজে কাটবে বলে ধারণা সকলের। মেলার আহ্বায়ক আশিক সুমন বলেন- ” আমি শিল্পাঙ্গনের মানুষ। সবসময় চেষ্টা করি মেলা বা যে কোনো উৎসবকে আরও রঙিন কী করে করা যায়। সে জায়গা থেকে কেনাকাটার পাশাপাশি গ্রুপের সকল সদস্য পাহাড় সমতলের বিভিন্ন সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড উপভোগের সুযোগ পাবেন এই মেলায়।”

মেলায় হিল এবং ঝিকরগাছা উভয় প্লাটফর্ম থেকে অংশ নিয়েছেন উদ্যোক্তারা। ঝিকরগাছার এডমিন সাবিনা হীরা বলেন- “একসাথে কাজ করাটা খুব আনন্দের। ভীষণ বন্ধুত্বপূর্ণ পরিবেশের মধ্য দিয়ে চলছে সবকিছু। আগামীতে আরও বড় প্রস্তুতি নিয়ে হিলের সাথে বড়কিছু করার ইচ্ছে রয়েছে। সকল আয়োজক, অংশগ্রহণকারী ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।”

মেলায় স্পন্সর করেছে জন্মভূমি ট্যুরিজম, হিল ফার্ণিচার রাঙ্গামাটি এবং ত্রিমাত্রিক গ্রাফিক্স ও এনিমেশন ফার্ম।

যৌথ মেলার পরিকল্পনাকারী মনি পাহাড়ী’র সাথে কথা হলো সার্বিক বিষয় নিয়ে। তিনি বলেন- ” আমিত্ব নিয়ে পড়ে থাকলে হবে না। যাঁরাই উদ্যোক্তাদের নিয়ে কাজ করছেন তাঁদের পারস্পরিক সৌহার্দটা জরুরি। এতে করে উদ্যোক্তাদের কাজের ক্ষেত্রটা আরও বড় হবে। সেই জায়গা থেকে ঝিকরগাছা ই-প্লাটফর্ম এর সাথে মিলে এবার যৌথ মেলার পরিকল্পনা করা হয়েছে। আগামীতে আরও বড় পরিসরে এমন আয়োজন করার ইচ্ছে রয়েছে। আমরা দেখেছি সংগঠন চালাতে নানানরকম সাপোর্ট এর প্রয়োজন পড়ে। কাউকে বাদ দিয়ে নই আমরা। সে জায়গা থেকে স্পন্সর, সাংবাদিক, সুশীল সমাজ ও দায়িত্বশীল সংগঠনের যে সমর্থন পেয়ে আসছি আমরা তার জন্য সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। একদল তরুণ তরুণী দিনরাত নিঃস্বার্থভাবে কাজ করে যাচ্ছে গ্রুপে। তাদেরকে ধন্যবাদ জানাই। সর্বোপরি উদ্যোক্তা এবং ক্রেতার সাড়া আমাদেরকে ছোট্ট করে হলেও দেশের জন্য কিছু করার স্বপ্নাটা জাগিয়ে রেখেছে।”

মেলা শেষে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে পুরস্কার দেুা হবে উদ্যোক্তাদের। সকল বিষয় সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার জন্য রয়েছে দায়িত্বশীল ব্যক্তিবর্গ। যাঁরা বিভিন্ন ক্ষেত্রে দায়িত্ব পালন করছেন তাঁরা হলেন- আব্দুল্লাহ ও এসএফজ্যোতি (গ্রাফিক্স ও ভিডিওগ্রাফি), বিচারক হিসেবে আছেন -রূদাবা রায়হান,জুয়েল বড়ুয়া ইমন,
সোহেল আহমেদ, রেজাউর রহমান রিজভী, তাহসিন রহমান। সমন্বয়ক হিসেবে আছেন -মোহাম্মদ মাজেদুল ইসলাম, ঊর্মি গোস্বামী নীড়, হুমায়েরা ঐশী, লায়লা কামরুন নাহার,স্বপ্না চাকমা,তাবাসসুম সেঁজুতি। তত্বাবধানে রয়েছেন- সাবিনা হীরা, ননিকা চাকমা, মাফরুহা চৌধুরী, মাহবুবুল হাসান শাহীন। যুগ্ম আহ্বায়ক হিসেবে রয়েছেন মেহনাজ রহমান লিরা এবং মেলার আহ্বায়ক হিসেবে আছেন আশিক সুমন।

যৌথ পূজামেলার মিডিয়া পার্টনার হিসেবে আছে “দ্য স্টেটমেন্ট২৪.কম।

অনলাইনে যৌথ পূজা মেলার যে বর্ণিল পরিকল্পনা করা হয়েছে সেটা ভবিষ্যতে একটা উদাহরণযোগ্য কাজ হবে বলে বিশ্বাস সকলের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *