বুধবার, ফেব্রুয়ারি ২১Dedicate To Right News
Shadow

গোয়িং গ্লোবাল এশিয়া প্যাসিফিক কনফারেন্সে বৈশ্বিক অ্যালামনাই ইউকে নেটওয়ার্ক উন্মোচন করলো ব্রিটিশ কাউন্সিল

Spread the love

সম্প্রতি অ্যালামনাই ইউকে’র বৈশ্বিক উন্মোচনের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়েছে ব্রিটিশ কাউন্সিল। সিঙ্গাপুরে অনুষ্ঠিত গোয়িং গ্লোবাল এশিয়া প্যাসিফিক ২০২২ কনফারেন্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বৈশ্বিক এই নেটওয়ার্কের ঘোষণা দেওয়া হয়, যার উদ্দেশ্য মূলত যুক্তরাজ্যে উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করেছে এমন আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের এক করে তোলা। ব্রিটিশ কাউন্সিল এর বৈশ্বিক উচ্চশিক্ষার ফ্ল্যাগশিপ কনফারেন্সটি এই প্রথম আঞ্চলিকভাবে সিঙ্গাপুরে আয়োজন করলো। একই সাথে, নগর-রাষ্ট্রটিতে নিজেদের কার্যক্রম পরিচালনার ৭৫ বছর পূর্তিও উদযাপন করছে ব্রিটিশ কাউন্সিল।
যুক্তরাজ্যের উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান, এমনকি আন্তঃজাতীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বা অনলাইন শিক্ষাগ্রহণের ক্ষেত্রেও কমপক্ষে এক টার্ম পড়াশোনা করেছে এমন সকল আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীকে অ্যালামনাই ইউকে’র বৈশ্বিক নেটওয়ার্কে যোগদানের জন্য আহ্বান জানানো হয়েছে। এই লিঙ্ক থেকে তারা বিনামূল্যে রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন: https://alumniuk.britishcouncil.org/register
অ্যালামনাই ইউকে নেটওয়ার্কে যোগদানের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা তাদের প্রফেশনাল নেটওয়ার্ক বাড়াতে সক্ষম হবেন এবং পৃথিবীর যেকোনো প্রান্ত থেকে যুক্তরাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে পড়শোনা করেছেন এমন ব্যক্তিদের সাথে সংযুক্ত হতে পারবেন। পেশাদারি পরিচিতি তৈরির পাশাপাশি, এই নেটওয়ার্কের উদ্দেশ্য বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সহযোগিতা করার জন্য মানুষকে একত্রিত করা। অ্যালামনাই ইউকে’র অংশ হিসেবে এর সদস্যরা স্থানীয়, আঞ্চলিক ও বৈশ্বিকভাবে নানা আয়োজন ও প্রশিক্ষণে বিনামূল্যে যোগদানের সুযোগ পাবেন। এছাড়া, অ্যালামনাইরা সিনিয়র লিডার ও ইন্ডাস্ট্রি এক্সপার্টদের কাছ থেকে নিয়মিত শিক্ষাগ্রহণের সুযোগ পাবেন। শিক্ষার্থীরা অ্যালামনাই ইউকে নেটওয়ার্কের অংশ হিসেবে যুক্তরাজ্যের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করতে পারবেন এবং প্রতিনিয়ত ইংরেজি ভাষায় নিজেদের দক্ষতার বিকাশ ঘটাতে পারবেন।
অ্যালামনাই ইউকে নেটওয়ার্কের উদ্বোধন করেন সিঙ্গাপুরে নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনার কারা ওয়েন, ব্রিটিশ কাউন্সিলের ডিরেক্টর অব এডুকেশন ম্যাডেলেইন অ্যানসেল এবং ব্রিটিশ কাউন্সিলের পূর্ব এশিয়া অঞ্চলের ডিরেক্টর লুসি ওয়াটকিন্স। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানটি সিঙ্গাপুরে নিযুক্ত ব্রিটিশ হাইকমিশনারের দাপ্তরিক বাসভবন ইডেন হলে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে যুক্তরাজ্য সরকারের ইন্টারন্যাশনাল এডুকেশন চ্যাম্পিয়ন স্যার স্টিভ স্মিথ, এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চল থেকে যুক্তরাজ্যে উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করা বিশিষ্ট অ্যালামনাই এবং এ বছরের গোয়িং গ্লোবাল এশিয়া প্যাসিফিক কনফারেন্সে অংশ নিয়েছে এমন সিনিয়র হায়ার এডুকেশন লিডার সহ ৩০০ জনেরও বেশি অতিথি উপস্থিত ছিলেন।
এ বিষয়ে ব্রিটিশ কাউন্সিলের ডিরেক্টর অব এডুকেশন ম্যাডেলেইন অ্যানসেল বলেন, “যুক্তরাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে পড়াশোনা করা আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের মধ্যে আন্তঃসম্পর্ক স্থাপনে সহযোগিতার দীর্ঘ ইতিহাস নিয়ে ব্রিটিশ কাউন্সিল গর্বিত। পৃথিবীর প্রতিটি প্রান্ত থেকে সদস্যদের যুক্তরাজ্য ও বিশ্বের অন্যান্য দেশে অবস্থানকারী অ্যালামনাইদের সাথে যোগাযোগ নিশ্চিত করবে অ্যালামনাই ইউকে নেটওয়ার্ক। পেশাগত উন্নয়ন, নেটওয়ার্কিং ও সহযোগিতার সুযোগ তৈরির মাধ্যমে একটি প্রতিশ্রুতিশীল কমিউনিটি নির্মাণে অ্যালামনাই ইউকে সর্বোচ্চ আশাবাদী।”
যুক্তরাজ্য ও দক্ষিণ এশিয়ার শিক্ষার্থীদের মধ্যে সংযুক্তি বাড়াতে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে ব্রিটিশ কাউন্সিল, যেন তারা যুক্তরাজ্যের সাথে সুসম্পর্ক এগিয়ে নেয়ার মাধ্যমে সারা বিশ্বে ছড়িয়ে থাকা মেধাবী শিক্ষার্থীদের অংশ হতে পারে। ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষের জন্য ভারত (৯৩ হাজার শিক্ষার্থী ) ও পাকিস্তানে (২৩ হাজার শিক্ষার্থী) বিশেষ জোর দানের পাশাপাশি বাংলাদেশ (১৫ হাজার শিক্ষার্থী), শ্রীলংকা (৬ হাজার শিক্ষার্থী) ও নেপাল (৫ হাজার শিক্ষার্থী) সহ দক্ষিণ এশিয়ার সবগুলো অঞ্চলজুড়ে এ প্রচেষ্টা চলছে।
চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে সফট-লঞ্চের পর থেকে বিশ্বের ১০০টিরও বেশি দেশের ৮ হাজারেরও বেশি শিক্ষার্থী অ্যালামনাই ইউকে’তে যোগদানের ইচ্ছা প্রকাশ করেন, যারা যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করেছেন।
২০২৩ সালের ফেব্রুয়ারিতে অ্যালামনাই ইউকে’র প্রথম অনলাইন ফেস্টিভালের আয়োজন করবে ব্রিটিশ কাউন্সিল। যুক্তরাজ্যের হাজারো আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থী প্রফেশনাল উন্নয়নের অংশ হিসেবে ফেস্টিভালের দুই সপ্তাহব্যাপী বিভিন্ন আয়োজন ও কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করতে পারবেন।
আগামী বছর ব্রাজিল, চীন, মিসর, ফ্রান্স, জার্মানি, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, মেক্সিকো, নাইজেরিয়া, পাকিস্তান, সৌদি আরব, তুরস্ক, সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং ভিয়েতনাম সহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের শিক্ষার্থীদের মধ্যে সংযোগ বাড়াতে বিশেষ অ্যালামনাই কার্যক্রম পরিচালনা করবে ব্রিটিশ কাউন্সিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *