মঙ্গলবার, এপ্রিল ১৬Dedicate To Right News
Shadow

‘বিপিও সামিট বাংলাদেশ ২০২৩’-এর বিভাগীয় পর্যায়ের চূড়ান্ত অনুষ্ঠান চট্টগ্রাম বিভাগে অনুষ্ঠিত

Spread the love

গত বৃহস্পতিবার, ১৩ জুলাই বিকাল ৩:০০টায়, জেলা শিল্পকলা একাডেমী, চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত হয় ‘বিভাগীয় বিপিও সামিট ২০২৩ (চট্টগ্রাম বিভাগ)’-এর মূল অনুষ্ঠান ও চাকরি মেলা।

দেশব্যাপী তথ্যপ্রযুক্তি তথা বিপিও শিল্পের সম্প্রসারণ, দক্ষ জনশক্তি উন্নয়ন, বিভাগীয় পর্যায়ের বিপিও শিল্পের নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের নানান দিক, তথ্যপ্রযুক্তিভিত্তিক শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলোর সম্ভাবনাকে কাজে লাগানো ও তাদের সমস্যা সমাধানে করণীয় নির্ধারণ, তরুণ প্রজন্মের মাঝে সচেতনতা তৈরিসহ চাকরি মেলা আয়োজন, নীতিসংক্রান্ত সম্ভাব্য পরিমার্জনের প্রস্তাবনা ও আবশ্যিকতা নিয়ে বিশদ আলোচনার উদ্দেশ্যে মে-জুলাই মাসব্যাপী দেশজুড়ে পালিত হচ্ছে বাংলাদেশের বিপিও শিল্পের সর্ববৃহৎ, শীর্ষ সম্মেলন “বিপিও সামিট বাংলাদেশ ২০২৩”।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আবুল বাসার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান, জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, চট্টগ্রাম। তিনি তার বক্তব্যে বলেন- “মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যে স্মার্ট বাংলাদেশের ঘোষণা দিয়েছেন, সেই স্মার্ট বাংলাদেশের সর্বপ্রথম স্মার্ট জেলা হিসেবে আমরা চট্টগ্রামকে বিনির্মাণ করতে করতে চাই। চট্টগ্রামের বিভিন্ন উপজেলা থেকে আমরা ১২৭টি আইডিয়া সংগ্রহ করেছি, যার মধ্য থেকে প্রাথমিকভাবে ৫০টি আইডিয়া বাছাই করেছি বাস্তবায়নের জন্য। বর্তমানে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন ৫টি ইনোভেটিভ আইডিয়া বাস্তবায়িত করার জন্য কাজ করছে। স্মার্ট স্কুলবাস, পটিয়া আশ্রয়ণ প্রকল্প বা শেখ হাসিনা স্মার্ট ভিলেজ নির্মাণ, স্মার্ট অ্যাগ্রিকালচার ইক্যুইপমেন্ট অ্যান্ড স্মার্ট লেবার পুল, সমস্তপ্রকার লাইসেন্সিং-এর জন্য স্মার্ট অ্যাপ তৈরি- আইডিয়াগুলোর মধ্যে অন্যতম। বাক্কোকে অনেক ধন্যবাদ এমন চমৎকার আয়োজন বিভাগীয় পর্যায়ে নিয়ে আসার জন্য। আমাদের আইডিয়াসমূহ বাস্তবায়নে আপনাদের সবার সহযোগিতা চাই।”

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন মোঃ মিজানুর রহমান, উপসচিব, পরিচালক (অর্থ এবং প্রশাসন), তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তর; মোহাম্মদ কাওছার উদ্দীন, সভাপতি, টেকনোলজি মিডিয়া গিল্ড বাংলাদেশ-টিএমজিবি এবং এস এম ইমদাদুল হক, নির্বাহী সদস্য, বাংলাদেশ আইসিটি জার্নালিস্ট ফোরাম (বিআইজেএফ)। বাক্কো কার্যনির্বাহী কমিটির পক্ষ থেকে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন তৌহিদ হোসেন, সাধারণ সম্পাদক; ফজলুল হক, পরিচালক এবং একেএম আহমেদুল ইসলাম বাবু, পরিচালক। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বাক্কো লোকাল মার্কেট ডেভেলপমেন্ট সাবকমিটির চেয়ারম্যান মৃধা মোঃ মাহফুজ-উল-হক চয়ন এবং ভূঁইয়া মোহাম্মদ ইমরাদ (তুষার), ব্যবস্থাপনা সম্পাদক, কম্পিউটার বিচিত্রা।

অনুষ্ঠানের পাশাপাশি ক্যারিয়ার কাউন্সেলিং সেশন, সিভি সংগ্রহ এবং চাকুরি মেলা একইসঙ্গে চলতে থাকে সন্যেপ পর্যন্ত। দেশের তথ্যপ্রযুক্তিভিত্তিক নামকরা প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে অসংখ্য চাকরিপ্রার্থী মেধাবী শিক্ষার্থীদের ইন্টারভিউ নেয়া হয় এ চাকরি মেলায়। মেলায় অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানগুলো হলঃ ফিফো টেক, টেকনোগ্রাম লিমিটেড, নোবেল আইটি সলিউশান লিমিটেড, এইচ.এম.সি. টেকনোলজি লিমিটেড, হ্যালো ওয়ার্ল্ড এবং এডাব্লিউ কমিউনিকেশান।

উল্লেখ্য, একইদিনে (বৃহস্পতিবার, ১৩ জুলাই) সকাল দশটায় চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সভাকক্ষে বিপিও সামিটের অংশ হিসেবে ‘ফস্টারিং বিপিও ইন্ডাস্ট্রি টু অ্যাচিভ স্মার্ট বাংলাদেশ (Fostering BPO Industry to Achieve SMART Bangladesh)’ শীর্ষক পলিসি ডায়লগ সেশন অনুষ্ঠিত হয়। এ সেশনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আবুল বাসার মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান, জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, চট্টগ্রাম।

“বিপিও সামিট বাংলাদেশ ২০২৩” আয়োজনে প্ল্যাটিনাম ক্যাটাগরিতে স্পন্সর হিসেবে আছে- আয়েশা সার্ভিসেস লিমিটেড (এএসএল বিপিও), এডিএন টেলিকম লিমিটেড, জেনেক্স ইনফোসিস লিমিটেড এবং সিনার্জি সলিউশানস। গোল্ড ক্যাটাগরিতে স্পন্সর হিসেবে আছে- ব্যাংক এশিয়া লিমিটেড, মিনিস্টার হাই-টেক পার্ক লিমিটেড, উইজডম ভ্যালি লিমিটেড এবং সিলভার ক্যাটাগরির স্পন্সর হিসেবে আছে স্কাইটেক সলিউশানস।

‘বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অফ কনট্যাক্ট সেন্টার অ্যান্ড আউটসোর্সিং (বাক্কো)’-এর উদ্যোগে এবং বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের অন্তর্গত তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি অধিদপ্তর ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের আওতাভুক্ত ‘বিজনেস প্রোমোশন কাউন্সিল’-এর সার্বিক সহযোগিতায় দেশব্যাপী চলছে “বিপিও সামিট বাংলাদেশ ২০২৩” ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *