রবিবার, ফেব্রুয়ারি ২৫Dedicate To Right News
Shadow

লায়ন্স জেলা ৩১৫ এ১ এর অন্তর্গত ৯টি ক্লাবের অভিষেক

Spread the love

লায়ন্স জেলা ৩১৫ এ১ এর অন্তর্গত ৯টি ক্লাবের অভিষেক অনুষ্ঠিত হলো ঢাকার আগারগাঁও এর বাংলাদেশ লায়ন্স ফাউন্ডেশন অডিটোরিয়ামে। এ অভিষেক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা ৩১৫ এ১ এস সাবেক গভর্নর ইঞ্জিনিয়ার মোঃ মোস্তফা কামাল পিএমজেএফ।
বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এ কে এম রেজাউল হক এমজেএফ। অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা ৩১৫ এ১ এর প্রথম ভাইস গভর্নর ইঞ্জিনিয়ার মোঃ সেলিম মিয়া ও দ্বিতীয় ভাইস গভর্নর এ কে এম গোলাম ফারুক ও ঢাকা আলোকিত নারী লায়ন্স ক্লাবের সভাপতি সারমিন সেলিম তুলি।

লায়ন শফিকুল ইসলাম খোকন
অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা করেন।
অভিষেক অনুষ্ঠানে ঢাকা ইউটোপিয়া লায়ন্স ক্লাব, ঢাকা ট্রপিক্যাল লায়ন্স ক্লাব, নরসিংদী লায়ন্স ক্লাব, নরসিংদী সেন্ট্রিনিয়াল লায়ন্স ক্লাব, রায়পুরা লায়ন্স ক্লাব, খুলনা পাটগ্রাম কসবা লায়ন্স ক্লাব, নরসিংদী গ্রেটার লায়ন্স ক্লাব, ঢাকা সানবিম লায়ন্স ক্লাব ও আলোকিত নারী লায়ন্স ক্লাবের সদস্যদের স্বীকৃতি প্রদান করেন জেলা ৩১৫ এ১ এর প্রথম ভাইস জেলা গভর্নর ইঞ্জিনিয়ার মোঃ সেলিম মিয়া এবং শপথ বাক্য পাঠ করান ইঞ্জিনিয়ার মোঃ মোস্তফা কামাল, পিএমজেএফ।

লায়ন এ কে এম রেজাউল হক এমজেএফ বলেন- সারাদেশে ৩টি চক্ষু ইনস্টিটিউট রয়েছে। তারমধ্যে অন্যতম লায়ন্স চক্ষু হাসপাতাল এন্ড ইনস্টিটিউট। আমরা বিশ্বাস করি সেবার জগতে এসে আমরা যে উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছি তা বিশ্বে উদাহরণ হয়ে থাকবে। চক্ষু চিকিৎসার বিষয়ে আমরা বলতে পারি প্রতিবেশী দেশগুলোয় চিকিৎসা নিতে গিয়ে যারা সুস্থ হতে না পেরে ফিরে আসেন, তাঁদের চিকিৎসাও এখানে সফলভাবে করা যাচ্ছে। তিনি বলেন, লায়ন চক্ষু হাসপাতালে আইসিও, এনআইসিও এবং ডায়াগনস্টিক সুবিধাসহ বিশেষ সেবার ব্যবস্থা আছে। প্রতি বছর ১ লক্ষ ২০ হাজার থেকে দেড় লক্ষ মানুষকে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা দেওয়া হয় লায়ন চক্ষু হাসপাতালে। সদস্যদের অনুদানের টাকায় এ সেবা দেওয়া সম্ভব হচ্ছে।
লায়ন রবিউল হক এমজেএফ বলেন- নতুন সদস্যরা সংগঠনকে আরও সামনের দিকে এগিয়ে নিবেন এবং উদ্ভাবনী চিন্তার মাধ্যমে সংগঠনের কার্যক্রম আরও গতিশীল হবে। লায়ম এ কে এম গোলাম ফারুক বলেন- নতুন ক্লাবের সদস্যরা শুরু থেকেই কার্যকর অবদান রাখছেন। নতুন সদস্যদের প্রতি আহ্বান হচ্ছে- ‘আমরা যা বলব, আমরা তা করব’ এ প্রতিশ্রুতি থাকতে হবে।
অভিষেক অনুষ্ঠানে আজীবন সম্মাননা প্রদান করা হয়- লায়ন কল্পনা রাজিউদ্দীন পিএমজেএফকে।
ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ সেলিম মিয়া বলেন- মানবতার সেবা করার জন্য অন্যতম প্ল্যাটফর্ম লায়ন্স ক্লাব। তিনি বলেন- যারা স্বচ্ছল, তারাই এ ক্লাবে আসবেন এবং মানুষের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করবেন। আমরা বিশুদ্ধ লায়নিজমের চর্চা বাড়াতে চাই।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে ইঞ্জিনিয়ার মোঃ মোস্তফা কামাল পিএমজেএফ বলেন- দক্ষ কর্মী হিসেবে আপনারা সংগঠনের জন্য কাজ করবেন এবং আগামী দিনে দক্ষ হাতে নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য নিজেকে গড়ে তুলবেন। আন্তর্জাতিক এ সংগঠনের সদস্য হিসেবে মানবতার সেবায় নিজেদের উৎসর্গ করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *