বৃহস্পতিবার, মে ২৩Dedicate To Right News
Shadow

কর্মব্যস্ত সময়ে মুহূর্তেই তৈরি করুন পছন্দের সুস্বাদু সব খাবার

Spread the love

বর্তমান সময়ে প্রায় সবারবিশেষ করে যারা শহর অঞ্চলে বাস করে তাদের প্রতিদিনকার সময়ের বেশিরভাগই চলে যায় দৈনন্দিন নানা কাজে। নিজেদের, পরিবারের কিংবা বন্ধুদের জন্য প্রায়শই কোন সময় অবশিষ্ট থাকে না। আর এ বিবেচনায় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান মানুষের প্রতিদিনের লাইফস্টাইল আরও স্বাচ্ছন্দ্যদায়ক করে তুলতে প্রতিনিয়তই চেষ্টা করে যাচ্ছে উদ্ভাবনী পণ্য নিয়ে আসতে, যাতে মানুষ তাদের পছন্দের বিষয় নিয়ে আরও বেশি সময় কাটাতে পারে এবং কাজের বাইরে তাদের অবশিষ্ট সময়কে সার্থক করে তুলতে পারেন ও পছন্দের মুহূর্তগূলো উপভোগ করতে পারেন।  

আর এ প্রেক্ষিতে, বর্তমানের ডিজিটাল সময়ে, জীবনকে সহজ করে তোলার ক্ষেত্রে বহুমুখী সুবিধার জন্য মাইক্রোওয়েভ ওভেনের মতো কিচেন অ্যাপ্লায়েন্সের গুরুত্ব বাড়ছে। মাইক্রোওয়েভ ওভেনে যেমন রয়েছে নানাবিধ সুবিধা, তেমনি এ কিচেন অ্যাপ্লায়েন্সটি সহজে বহনযোগ্য এবং মুহূর্তের মধ্যেই খাবার গরম করে ফেলে; পাশাপাশি মাইক্রোওয়েভ ওভেন পরিষ্কার করাও সহজ। মাইক্রোওয়েভ ওভেনে খাবার গরম করা ছাড়াও অল্প সময়ে মজাদার খাবার তৈরি করা যায়। ফলে, যাদের কাজের বাইরে রান্নার জন্য সময় বের করা কঠিন, তারা মাইক্রোওয়েভ ওভেন ব্যবহার করার মাধ্যমে জীবনকে করে তুলতে পারেন আরেকটু স্বাচ্ছন্দ্যদায়ক। ফ্রাইড চিকেনের মতো মজাদার খাবার তৈরির ক্ষেত্রে মাইক্রোওয়েভ ওভেনের হট ব্লাস্ট ফিচার খাবারের বাইরের পাশকে যেমন ক্রিস্পি রাখে, তেমনি খাবারের ভেতরকে রাখে জুসি। 

যারা খাবারের পুষ্টিগুণের ব্যাপারে সচেতন, তাদের জন্য আদর্শ কিচেন অ্যাপ্লায়েন্স হচ্ছে মাইক্রোওয়েভ ওভেন। বিভিন্ন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতে, খাবার সেদ্ধ কিংবা ভাজার সময় খাবারের ৮০ থেকে ৯০ শতাংশ পর্যন্ত পুষ্টিগুণ নষ্ট হয়ে যায়; সেক্ষেত্রে, মাইক্রোওভেনে বেশ তাড়াতাড়ি খাবার প্রস্তুত করা যায়, যার ফলে খাবার কম সময়ে রান্না করা যায় এবং খাবারের খাদ্যগুণও অটুট থাকে। হার্ভাড হেলথ পাবলিশিং -এর তথ্য অনুযায়ী, খাবারে ভিটামিন সি সহ অন্যান্য পুষ্টিগুণ বিদ্যমান রাখার ক্ষেত্রে দারুণ কার্যকরী ভূমিকা রাখে মাইক্রোওয়েভ ওভেন। উদাহরণ হিসেবে আরও বলা যায়, ব্রকলির কথা। সাধারণত ব্রকলি সেদ্ধ করার সময় এর গ্লুকোসিনোলেট (সালফার যুক্ত যৌগ – সবজির এ উপাদান ক্যান্সার প্রতিরোধে কার্যকরী ভূমিকা রাখে) নষ্ট হয়ে যায়। এক্ষেত্রেও, মাইক্রোওয়েভ ওভেনে ব্রকলি স্টিম করা হলে এর গ্লুকোসিনোলেট অটুট থাকে। খাবারের পুষ্টিমান অটুট রাখার ক্ষেত্রে অত্যন্ত কার্যকরী ভূমিকা রাখে মাইক্রোওয়েভ ওভেন; পাশাপাশি এর স্বাস্থ্যকর এয়ার ফ্রায়ার ফিচারের কারণে তেলও অনেক কম ব্যবহার করতে হয়। 

বর্তমানে বেশিরভাগ মাইক্রোওয়েভ ওভেনের সাথে প্রি-সেট বিভিন্ন খাবারের রেসিপি দেয়া থাকে যাতে ব্যবহারকারীরা ওভেনের মাল্টি-ফাংশনাল ফিচার ব্যবহার করে সহজেই বিভিন্ন খাবার প্রস্তুত করতে পারেন। রেসিপি, সুবিধাজনক সব ফিচার এবং সহজে ব্যবহারযোগ্য কন্ট্রোল প্যানেলের মাধ্যমে সহজেই কম সময়ে মাইক্রোওয়েভ ওভেনে খাবার তৈরি করা যায়। প্রি-সেট রেসিপি ছাড়াও, মাইক্রোওয়েভ ওভেনে সহজে ও দ্রুত খাবার তৈরির জন্য অনলাইনে অসংখ্য রেসিপি পাওয়া যায়। তাই, যেকেউ এখন তাদের পছন্দের রেসিপি বের করে মুহূর্তেই মাইক্রোওয়েভ ওভেনে তাদের পছন্দের খাবার তৈরি করতে পারবেন।  

মাইক্রোওয়েভ ওভেনে খাবার প্রস্তুত করার পর, ওভেনের ভেতরে সিরামিক এনামেল থাকার কারণে সহজেই স্বল্পসময়ে ওভেন পরিস্কার করা যাবে। সিরামিক এনামেল কোটেড ইন্টেরিয়র মাইক্রোওয়েভ ওভেনের ভেতরের পাশকে রাখবে স্ক্র্যাচ, ফাটল ও ব্যাকটেরিয়া মুক্ত। স্যামসাং -এর মতো স্বনামধন্য ও জনপ্রিয় ব্র্যান্ড ব্যবহারকারীদের সুবিধা বিবেচনায় সম্পূর্ণভাবে এনামেল-কোটেড (ইন্টেরিয়র) মাইক্রোওয়েভ ওভেন নিয়ে এসেছে বাজারে, যার ফলে এ মাইক্রোওয়েভ ওভেন নিশ্চিন্তে ব্যবহার করা যাবে বহুদিন পর্যন্ত। ওভেনের ইন্টেরিয়রে সিরামিক কোট ওভেনকে করে তোলে আরও সুরক্ষিত, স্বাস্থ্যকর ও সহজে ব্যবহারযোগ্য। স্যামসাং এর কনভেকশন মাইক্রোওয়েভ ওভেনে সহজেই বানানো যাবে পিৎজা ও কুকিসহ বিভিন্ন আইটেম। পাশাপাশি, স্যামসাং ওভেনে রয়েছে স্লিম ফাই ফিচার, যার ফলে তেল ব্যবহার হবে অনেক কম।       

মূলত মাইক্রোওয়েভ ওভেন সহ বর্তমানে বাজারে বিভিন্ন ধরনের আধুনিক প্রযুক্তির ওভেন পাওয়া যায়, যা আমাদের ডিজিটাল লাইফস্টাইলকে সহজ করে তুলতে ভূমিকা রাখবে। অনন্য এ কিচেন অ্যাপ্লায়েন্সটি খাবারের স্বাদ ও পুষ্টিগুণ বজায় রাখার ক্ষেত্রে অত্যন্ত কার্যকরী। তাই, আসছে নতুন বছরে মাইক্রোওয়েভ ওভেনের মাল্টি-ফাংশনাল সুবিধা ব্যবহার করে সুস্বাদু সব খাবার রান্না করে চমকে দিন আপনার প্রিয়জনকে, জীবনকে করে তুলুন আরও উপভোগ্য!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *