সোমবার, জুন ২৪Dedicate To Right News
Shadow

বিআইএসি এর ১৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সেমিনার

Spread the love

গত ২৬ মে ২০২৪  বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল আরবিট্রেশন সেন্টার (বিআইএসি) তার ১৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ‘বিনিয়োগ বিরোধ নিষ্পত্তি: সফলতার জন্য প্রয়োজন একটি শক্তিশালী ADR কাঠামো” শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। সেমিনারটি ঢাকার প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা আব্দুল মুয়ীদ চৌধুরী এবং সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের মাননীয় বিচারপতি খিজির আহমেদ চৌধুরী। তারা তাদের বক্তব্যে বিনিয়োগ বিরোধ নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ মতামত দেওয়ার পাশাপাশি ADR পদ্ধতি প্রচারে সরকার ও  বিচার বিভাগের ভূমিকা তুলে ধরে বলেন যে, এর মাধ্যমে দেশের পরিবেশ আরও ব্যবসাবান্ধব ও অর্থনীতির উন্নতিতে সহায়ক হবে। তাছাড়াও বিনিয়োগ বিরোধ নিষ্পত্তি সহজভাবে সমাধানের জন্য একটি শক্তিশালী ADR কাঠামো গড়ে তোলার ব্যাপারে সরকারের প্রতিশ্রুতির কথাও তুলে ধরেন।

সেমিনারে অন্যান্যদের মধ্যে আরোও উপস্থিত ছিলেন সাবেক প্রধান বিচারপতি জনাব কে. এম. হাসান এবং জনাব মুহাম্মদ সৈয়দ মাহমুদ হোসেন। অন্যান্য অতিথিদের মধ্যে ছিলেন, আপিল বিভাগের প্রাক্তন বিচারপতি তারিক উল হাকিম, প্রখ্যাত আইনজীবী শাহদীন মালিক, সম্মানিত সংসদ সদস্য ও হা-মীম গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা মোঃ এ. কে. আজাদ, মেট্রোপলিটন চেম্বার অফ কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি (MCCI) এর প্রেসিডেন্ট কামরান টি. রহমান, এবং অন্যান্য ব্যবসায়িক নেতৃবৃন্দ, বিশিষ্ট আইনজীবী, কর্পোরেট হাউসের প্রতিনিধি সরকারি কর্মকর্তা, ব্যাংক ও বীমা কোম্পানির উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, শিক্ষাবিদ ও গনমাধ্যমকর্মীরা।

থাইল্যান্ড আরবিট্রেশন সেন্টার এর পরিচালক জনাব নিকি বালানি, তার মূল বক্তব্যে বিনিয়োগ বিরোধে সফলতা লাভের কৌশলগুলি নিয়ে আলোচনা করেন এবং একটি শক্তিশালী ADR কাঠামোর প্রয়োজনীয়তার উপর জোর দেন। তিনি বিনিয়োগ নিষ্পত্তিতে ADR এর বৈশ্বিক গ্রহনযোগ্যতা ও প্রয়োজনীয়তাকে তুলে ধরেন। তার মতে ADR এর মাধ্যমে বিনিয়োগ বিরোধ নিষ্পত্তি হলে তা অর্থনীতিকে আরও গতিশীল ও উন্নত করবে। একই সাথে আদালত অঙ্গনে মামলার জট কমবে। অন্যান্য বক্তারাও তার বক্তব্যের সাথে একমত প্রকাশ করেন এবং সালিশি প্রক্রিয়ার ক্রমাগত উন্নতির প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরেন, যাতে বিরোধ নিষ্পত্তি আরও দ্রুত এবং আরও সাশ্রয়ী হয়। তারা ADR পদ্ধতি জনপ্রিয় করার উপলক্ষে প্রয়োজনীয় বিভিন্ন মূল্যবান পদক্ষেপ সুপারিশ করেছেন।

BIAC-এর ভাইস চেয়ারম্যান মুহাম্মদ এ. (রুমি) আলী অতিথি এবং দর্শকদের স্বাগত জানিয়ে বিনিয়োগ বিরোধ নিষ্পত্তির ক্ষেত্রে সমন্বিত প্রচেষ্টার গুরুত্ব তুলে ধরেন। তিনি স্বচ্ছ, দক্ষ, এবং ন্যায্যভাবে বিনিয়োগ বিরোধ নিষ্পত্তির জন্য, এই প্রক্রিয়ার সাথে সম্পর্কিত সকলকে একসঙ্গে কাজ করার প্রয়োজনীয়তা উল্লেখ করেন। এই সময় তিনি BIAC এর কার্যক্রম এবং অর্জনসমূহ উপস্থাপন করেন এবং ‘বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তি’ যেনো বিচার ব্যবস্থার সহায়কী ভূমিকা পালন করতে পারে সেজন্য এর প্রতিবন্ধকতাগুলি দূর করার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন।

বিআইএসি চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান ‘তাঁর সমাপনী বক্তব্যে ADR এর মাধ্যমে বিনিয়োগ বিরোধ নিষ্পত্তিতে BIAC এর প্রতিশ্রুতি তুলে ধরেন। একইসাথে ADR পদ্ধতিগুলো আমাদের বিচার ব্যবস্থায় যথাযথ অন্তর্ভূক্তির মাধ্যমে সকল আর্থিক চুক্তি সংশ্লিষ্ট বিরোধসমূহকে দ্রুত ও সাশ্রয়ী আকারে নিষ্পত্তি করতে সরকারের যথাযথ পদক্ষেপ চান।

সেমিনারে আরও বিশিষ্ট বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি জনাব এএফএম আবদুর রহমান, লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগের সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ শহিদুল হক, সুপ্রিম কোর্টের অ্যাডভোকেট জনাব মোহাম্মদ ফররুখ রহমান, ঢাকা চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (DCCI) এর সভাপতি জনাব আশরাফ আহমেদ, ইস্টার্ন ব্যাংকের এডিশনাল ম্যানেজিং ডিরেক্টর আহমেদ শাহীন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক এবং বাংলাদেশের সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (BSEC) প্রথম মহিলা কমিশনার ডঃ রুমানা ইসলাম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *