বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ৭Dedicate To Right News
Shadow

সবার আগে বাংলাদেশে ‘মরবিয়াস’!

Spread the love

হলিউডের ছবি বিশ্বের সবার আগে বাংলাদেশে মুক্তি পাবে-এ ধরণের চমকপ্রদ খবর আগেও একাধিকবার দিয়েছে স্টার সিনেপ্লেক্স। যাদের দেশের ছবি তাদের আগেই বাংলাদেশের দর্শকরা দেখার সুযোগ পাচ্ছেন, বিষয়টা চমকপ্রদই বটে! আবারও এমন সুযোগ তৈরি হচ্ছে হলিউডের সিনেমাপ্রেমী দর্শকদের জন্য। মার্ভেলের সুপারহিরো ছবি ‘মরবিয়াস’ আন্তর্জাতিকভাবে মুক্তি পাবে ১ এপ্রিল, আর বাংলাদেশের স্টার সিনেপ্লেক্সে মুক্তি পাবে ৩১ মার্চ। নির্মাণের শুরু থেকে আলোচনা সৃষ্টি করা ছবিটি ২০২০ সালের জুলাইয়ে মুক্তি পাওয়ার কথা থাকলেও করোনা মহামারীর কারণে বেশ কয়েকবার মুক্তির তারিখ পিছিয়েছে। অবশেষে মুক্তি চূড়ান্ত হওয়ায় দর্শকদের অপেক্ষার অবসান ঘটছে। মার্ভেল কমিকসের চরিত্র মরবিয়াসকে কেন্দ্র করে নির্মিত হয়েছে ছবিটি। মার্ভেল এন্টারটেইনমেন্ট এবং কলাম্বিয়া পিকচার্সের যৌথ প্রযোজনায় এ ছবি পরিচালনা করেছেন ড্যানিয়েল এসপিনোসা। কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন ‘সুইসাইড স্কোয়াড’খ্যাত জ্যারেড লেটো। আরও আছেন ম্যাট স্মিথ, আদ্রিয়া আরজোনা, টাইরিস গিবস, জারেড হ্যারিস প্রমুখ।

ছবির গল্প ডা. মরবিয়াসকে ঘিরে। বিরল এক রোগে আক্রান্ত মরবিয়াস ধীরে ধীরে হয়ে ওঠে ভয়ানক রক্তচোষা ভ্যাম্পায়ার। মার্ভেল কমিকসের অন্যতম চরিত্র মরবিয়াস নায়ক বা খলনায়ক নয়। মূলত অ্যান্টি-হিরো হিসাবে শ্রেণীবদ্ধ হলেও তিনি তার মন্দ কাজের জন্য অনুশোচনা বোধ করেন। ভালো কাজ করতে পছন্দ করেন এবং তার খলনায়ক পক্ষকে ধ্বংস করার জন্য সবকিছু করেন। এমনকি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে নিরীহ মানুষকে হত্যা করার পর তার আত্মহত্যার চিন্তাও আসে। সত্যিকারের ভ্যাম্পায়ারদের মতো, মরবিয়াস ব্যক্তিদের তাদের সমস্ত রক্ত বের করে দিয়ে নিজের মতো ছদ্ম-ভ্যাম্পায়ারে রূপান্তর করতে সক্ষম। মরবিয়াস তার তৈরি করা ছদ্ম-ভ্যাম্পায়ারদের উপর নিয়ন্ত্রণ রাখে, ঠিক যেমন অতিপ্রাকৃত ভ্যাম্পয়াররা তাদের তৈরি করা ভ্যাম্পায়ারদের উপর মানসিক নিয়ন্ত্রণ রাখে। সবচেয়ে শক্তিশালী ভ্যাম্পায়ার মার্ভেল ইউনিভার্সে নায়ক এবং খলনায়কদের বিরুদ্ধে একইভাবে লড়াই করে। তার পশুর মতো ক্রোধ তাকে মারাত্মক করে তোলে। তবে এটি তার উচ্চ বুদ্ধিমত্তা এবং যে কোন পরিস্থিতির সাথে খাপ খাইয়ে নেয়ার ক্ষমতা যা তাকে আরও প্রভাবশালী করে তোলে। রোগ নিরাময়ের পরিবর্তে তিনি ছদ্ম-ভ্যাম্পায়ারে পরিণত হন। এবার সেই ভয়ংকর জীবন্ত ভ্যাম্পায়ারকে বড় পর্দায় এনেছে সনি পিকচার্স । মুলত এই ছবিতে একসাথে হিরো এবং ভিলেনের দ্বৈরথ চরিত্রে দেখা যাবে। ২০১৮ সালে মুক্তি পাওয়া ‘ভেনম’ ছবি থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে মরবিয়াস চরিত্রটি নিয়ে ভাবনা শুরু করে সনি পিকচার্স। ২০১৯ সালে ছবির কাজ শুরু হয়। মার্ভেল কমিকস-এর সুপারহিরোরা দুনিয়াজুড়ে জনপ্রিয়। কমিকস-এর সুপারহিরো পর্দায়ও সফলভাবে উপস্থাপন করে তারা। যার ফলে দর্শকও অপেক্ষায় থাকে তাদের ছবির জন্য। অন্য সুপারহিরোদের মত এবার মরবিয়াস কতটা দর্শকের মন জয় করতে পারে সেটাই দেখার বিষয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *