রবিবার, ফেব্রুয়ারি ২৫Dedicate To Right News
Shadow

আন্তর্জাতিক যুব দিবস ২০২২ উদযাপিত

Spread the love

আজ ১২ আগস্ট আন্তর্জাতিক যুব দিবস । এ বছর দিবসটির প্রতিপাদ্য হলো Intergeneration Solidarity : Creating a World for All ages। আন্তর্জাতিক যুব দিবসের মূল উদ্দেশ্য সামাজিক,অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক ঘটনা থেকে শুরু করে বিভিন্ন বিষয়ে যুবদের অংশগ্রহণ এবং মতামত আলোচনা করা। বিশ্বব্যাপী যুব সমাজের শিক্ষা,স্বাস্থ্য ও কর্মসংস্থানের অধিকার নিয়ে সোচ্চার হওয়ার দিন হিসেবে দিবসটি পালন করা হয়ে থাকে। যুবসমাজের নিজেদের অধিকার বুঝে নেয়ার প্রতি সচেনতা বাড়ানোর এক প্রয়াস।
প্রতিবছরের ন্যায় এবছরও বিশ্বের সংগে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশেও দিবসটি পালিত হচ্ছে। দিবসটি উদযাপন উপলক্ষ্যে যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর এক আলোচনা সভার (বাস্তব/ভার্চুয়াল) আয়োজন করে। যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের সম্মেলন কক্ষে ১২ আগস্ট বিকাল ৩টায় এ আলোচনা সভাটি অনুষ্ঠিত হয়।
যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (গ্রেড-১) মোঃ আজহারুল ইসলাম খান এর সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মোঃ জাহিদ আহ্সান রাসেল এমপি, প্রতিমন্ত্রী,যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়। বিশেষ অতিথি ছিলেন মেজবাহ উদ্দিন,সচিব,যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় এবং ইউএনএফপিএ বাংলাদেশের রিপ্রেজেনটিভ Kristine Blokhus. আরো উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তরের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও যুব সংগঠনের প্রতিনিধিবৃন্দ।
আব্দুল লতিফ মোল্লা, পরিচালক (যুগ্ম-সচিব) বাস্তবায়ন, যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর এর স্বাগত বক্তব্য দিয়ে আলোচনা অনুষ্ঠান শুরু হয়। যুব সংগঠক, প্রশিক্ষনার্থী এবং অতিথিবৃন্দের বক্তব্যে পর প্রধান অতিথি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ট বাঙালি,স্বাধীনতার মহান স্থপতি,বাঙালী জাতির স্বপ্নদ্রষ্টা, ইতিহাসের মহানায়ক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর প্রতি এবং তাঁর পরিবারের শহীদ অন্যান্য সদস্যদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান। তিনি শ্রদ্ধা জানান শহীদ জাতীয় চার নেতার প্রতি। তিনি কৃতজ্ঞতা জানান বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতি যাঁর নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ উন্নত সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাচ্ছে।
প্রধান অতিথি দিবসটি তাৎপর্য তুলে ধরে বলেন, জনসংখ্যার দ্রুত বৃদ্ধিজনিত পরিবর্তনের সাথে মানবজাতি ও বিশ্বের কল্যাণে টেকসই উন্নয়ন জরুরী। টেকসই উন্নয়নের জন্য সকল প্রজন্মের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করণ একটি বড় চ্যালেঞ্জ। এই বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ যুব জনগোষ্ঠীর সক্রিয় অংশগ্রহণ ব্যতীত সাফল্যজনক ভাবে মোকাবেলা করা সম্ভব নয়।
অসীম সাহসী, সৃজনশীল ও সম্ভাবনাময় যুবসমাজ যুগ যুগ ধরে উন্নয়নের কেন্দ্রবিন্দু হিসেবে ভূমিকা পালন করছে। তাই SDG বা টেকসই অভীষ্ট উন্নয়নের লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে আন্তঃপ্রজন্ম সংহতি স্থাপনসহ সকল বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় তারাই গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার। তিনি তাঁর বক্তব্যে বাংলাদেশে যুবদের কল্যাণে সরকারের গৃহিত বিভিন্ন কর্মসূচি ও অগ্রগতি তুলে ধরেন।
আন্তর্জাতিক যুবদিবসের এ প্রাক্কালে তিনি যুবদের প্রতি উদাত্ত আহবান জানিয়ে বলেন বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে ধারণ করে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার যোগ্য ও বলিষ্ঠ নেতৃত্বে উন্নয়নমূখী কর্মকান্ডে অংশগ্রহণের মাধ্যমে যুবরাই আগামী বৈশিক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে হবে।
অতঃপর সভাপতি মোঃ আজহারুল ইসলাম খাঁন,মহাপরিচালক (গ্রেড-১), যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর তাঁর সমাপনী বক্তব্যের মাধ্যমে আলোচনা অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষনা করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *