রবিবার, মে ১৯Dedicate To Right News
Shadow

বাক্কো মেম্বারস মিট ২০২৪ অনুষ্ঠিত

Spread the love

তথ্য ও প্রযুক্তি খাতের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ৩৯০ টিরও বেশি প্রতিষ্ঠানের সংগঠন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশান অফ কনট্যাক্ট সেন্টার অ্যান্ড আউটসোর্সিং (বাক্কো)’। ২০০৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হওয়া এ ছোট্ট সংগঠনটি কালের পরিক্রমায় আজ দেশের তথ্য প্রযুক্তি খাতে অবদান রেখে চলা এক অন্যতম সংস্থা। বাক্কো বিশ্বাস করে সদস্য প্রতিষ্ঠানগুলোই তাদের পথচলার চালিকাশক্তি, এবং সকল প্রতিষ্ঠানের সম্মিলিত প্রচেষ্টা এবং কার্যোদ্যোগের মাধ্যমেই সম্ভাবনাময় এ শিল্পখাতটির অবস্থান বাংলাদেশের বর্তমান অর্থনীতিতে অবদান রেখে চলা শিল্পখাতগুলোর মধ্যে প্রথম অবস্থানে উন্নীত করা সম্ভব, আর তার জন্য প্রয়োজন সদস্য প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে মেলবন্ধন তৈরি করা। তারই অভিপ্রায়ে, বাক্কো বিগত বছরগুলোর ন্যায় এ বছরও আয়োজন করেছে “মেম্বারস মিট ২০২৪” শীর্ষক একটি প্রীতি সম্মিলনী অনুষ্ঠান।

সম্প্রতি রাজধানীর সেলিব্রিটি কনভেনশন হলে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক এমপি ।

অনুষ্ঠানে সদস্যদের প্রীতি সম্মিলনীর পাশাপাশি বাক্কোর নবনির্বাচিত কার্যনির্বাহী পরিষদ সদস্যদের আনুষ্ঠানিক অভিষেক ঘটে। ২০২৪-২৬ মেয়াদের কার্যনির্বাহী কমিটির সভাপতি হিসেবে ডিজিকন টেকনোলজিস পিএলসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ওয়াহিদ শরীফ এবং সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ফিফোটেকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ হোসেন নির্বাচিত হয়েছেন। জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি হিসেবে টাইমস এএসএল কল সেন্টার লিমিটেডের চেয়ারম্যান মো: আবুল খায়ের, সহসভাপতি হিসেবে অটোমেশন সলিউশনজ বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর তানভীর ইব্রাহীম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হিসেবে মাই আউটসোর্সিং লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো: তানজিরুল বাসার এবং অর্থ সম্পাদক হিসেবে ইম্পেল সার্ভিস অ্যান্ড সলিউশন্স লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ আমিনুল হক নির্বাচিত হয়েছেন। এ ছাড়াও পরিচালক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন এনরুট ইন্টারন্যাশনাল লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আবু দাউদ খান, স্কাইটেক সলিউশন্সের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মুসনাদ ই আহমেদ, নোবেল আইটি সলিউশন্স লিমিটেডের চেয়ারম্যান মোঃ ফজলুল হক, ভার্চুয়াল মার্কেট সলিউশন লিমিটেডের পরিচালক আবদুল কাদের, আয়েশা সার্ভিসেস লিমিটেডের (এএসএল বিপিও) প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জায়েদ উদ্দীন আহমেদ এবং মনস্টারল্যাব এন্টারপ্রাইজ সলিউশন্স লিমিটেডের পরিচালক মেহেদী হাসান জুলফিকার।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্যে বাক্কো সভাপতি ওয়াহিদ শরীফ বলেন, বিপিও শিল্পের অভিলক্ষ্য ২০২৫ সালের মধ্যে ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রাজস্ব আয় অর্জন ও ১ লক্ষ কর্মসংস্থান সৃষ্টি । এই লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সকল প্রতিবন্ধকতা হতে উত্তরণে আপনাদের সবার সহযোগিতা প্রয়োজন। আমি আশা করছি, ২০২৪ – ২০২৬ মেয়াদের এই নবনির্বাচিত কমিটি এই শিল্পের সম্প্রসারণে তাদের সর্বাত্মক প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখবে, আমরা সবাই যদি ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করি তাহলে অচিরেই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ‘স্মার্ট বাংলাদেশ’বিনির্মাণ করা সম্ভব ।

পরবর্তীতে তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পখাতের উপরে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাক্কো সাধারণ সম্পাদক তৌহিদ হোসেন। এ-সময় তিনি বলেন, “তথ্যপ্রযুক্তি খাতের অন্তর্ভুক্ত শিল্পগুলোর মধ্যে অন্যতম ‘বিজনেস প্রসেস আউটসোর্সিং (বিপিও)’, যা ইতোমধ্যেই আন্তর্জাতিক বাজারে সেবা রপ্তানির মাধ্যমে বছরে ৮০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার রাজস্ব আহরণকারী নিয়ত-বর্ধনশীল এক শিল্পক্ষেত্র হয়ে উঠেছে। বিপিও শিল্পে বর্তমানে কর্মরত জনসম্পদের সংখ্যা ৮০০০০+; যার ৪০ শতাংশই নারী। বাক্কো ২০২৫ সালের মধ্যে বিপিও শিল্পখাতে ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রাজস্ব আয় তৈরি ও ১ লক্ষ কর্মসংস্থান সৃষ্টির পাশাপাশি বাংলাদেশ সরকারের “স্মার্ট বাংলাদেশ ২০৪১”-লক্ষ্য অর্জনে সরকারি, বেসরকারি ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ের অসংখ্য প্রতিষ্ঠান ও অংশীজনদের সঙ্গে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। লক্ষ্যমাত্রাসমূহ পূরণে নানামুখী কর্মসূচীও গ্রহণ করেছে বাক্কো”। তার পরপরই তিনি সদস্যদের সামনে নবনির্বাচিত কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যবৃন্দ ও উপদেষ্টাগণের পরিচিতি উপস্থাপন করেন। তিনি বাক্কোর পূর্ববর্তী কার্যনির্বাহী পরিষদের প্রতি আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। এছাড়া বাক্কোর আটটি উপ-কমিটির ডিরেক্টর ইনচার্জ প্রত্যেকে নিজ নিজ উপ-কমিটির পক্ষ থেকে উপ-কমিটির অভিলক্ষ্য, কর্মপরিকল্পনা এবং গৃহীত বিভিন্ন উদ্যোগগুলো তুলে ধরেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক নতুন কার্যনির্বাহী কমিটিকে অভিনন্দন জানান । বিশ্বের অন্যান্য দেশের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশ অচিরেই হয়ে উঠতে চলেছে এক অন্যতম বিপিও ডেস্টিনেশন, এরূপ আশাবাদ ব্যক্ত করে তিনি বলেন, কলসেন্টারের মাধ্যমে সরকার বর্তমানে নতুন নতুন সেবা মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিচ্ছে । বিপিও শিল্প আমাদের সামনে একটি নতুন সম্ভাবনার দুয়ার উন্মোচন করে দিয়েছে । বাক্কোর যারা সদস্য এবং উদ্যোক্তারা আছেন তাদের আমি বলতে চাই, আমাদের নতুন নতুন সেক্টরে সক্ষমতা তৈরি করতে হবে। বর্তমানে সারা বিশ্বেই আমাদের ব্যবসা করার ক্ষেত্র তৈরি হয়েছে। আমাদের লক্ষ্য আগামী পাঁচ বছরে তথ্যপ্রযুক্তি সেক্টরে নতুন করে ১০লক্ষ কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা এবং এক বিলিয়ন ডলার বৈদেশিক বিনিয়োগ আকর্ষণ করা। আমরা মাননীয় আইসিটি উপদেষ্টা এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞ, আমরা ধারাবাহিকভাবে ২০১৮ সাল থেকে ২০২৪ সাল পর্যন্ত কর্পোরেট আয়কর অব্যাহতি পেয়েছি । এ বছর আয়কর অব্যাহতির মেয়াদ শেষ হতে যাচ্ছে, ইতিমধ্যে তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পের জন্য আয়কর অব্যাহতির মেয়াদ ২০২৪ সাল থেকে ২০৩১ সাল পর্যন্ত বর্ধিত করার জন্য আমি মাননীয় অর্থ প্রতিমন্ত্রী, মাননীয় অর্থমন্ত্রী এবং জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যানের নিকট জোর দাবি জানিয়েছি যেন এই সেক্টরটি আরো বিকশিত হতে পারে ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) এর ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড অপারেশন্স বিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল কাজী মুস্তাফিজুর রহমান, এসপিপি, এনডিসি, পিএসসি বলেন, “বাক্কোর নতুন কার্যনির্বাহী কমিটিকে অভিনন্দন। বিপিও শিল্পের সম্প্রসারণে বিটিআরসি তার সর্বাত্মক সহযোগিতা অতীতের ন্যায় ভবিষ্যতেও অব্যাহত রাখবে। আমি বিশ্বাস করি, সবাই সবার নিজ নিজ জায়গা থেকে চেষ্টা করে গেলে প্রযুক্তির শক্তিকে কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশ সরকারের ‘স্মার্ট বাংলাদেশ’লক্ষ্যমাত্রা সফল করা সম্ভব”।

এছাড়াও, অনুষ্ঠানের অংশ হিসেবে বাক্কো আয়োজন করে সদস্যদের অংশগ্রহণে একটি উন্মুক্ত আলোচনা সভা। আলোচনায় বিপিও ইন্ডাস্ট্রি সম্প্রসারণের পথে বিদ্যমান সকল প্রতিবন্ধকতা হতে উত্তরণের উপায়, কর্মীসংস্থান, বিভিন্ন প্রশিক্ষণ কার্যক্রম, প্রযুক্তির সংস্থায়ন, ও চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় নানাবিধ সমস্যার সমাধানে করণীয় সহ অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় উঠে আসে।

ধন্যবাদ জ্ঞাপন বক্তব্যে বাক্কোর জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি মোঃ আবুল খায়ের বাক্কোর সকল সদস্যবৃন্দ, এই অনুষ্ঠান আয়োজনে যারা পৃষ্ঠপোষকতা করেছেন এবং অনুষ্ঠান আয়োজনে যারা সম্পৃক্ত ছিলেন সবাইকে ধন্যবাদ জানান ।

এরপরই অনুষ্ঠানে পৃষ্ঠপোষকতাকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর হাতে সম্মাননা স্মারক তুলে দেয় বাক্কো। সাড়ম্বরে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে পৃষ্ঠপোষকতা করে অসামান্য ভূমিকা পালন করেছে প্লাটিনাম স্পন্সর পেওনিয়ার, নগদ, ওয়েজলি, গো-ইয়ারা লিমিটেড, আয়েশা সার্ভিসেস লিমিটেড (এএসএল বিপিও), এবং টাইমস এএসএল কল সেন্টার লিমিটেড; গোল্ড স্পন্সর ফিফোটেক, স্কাইটেক সলিউশন্স, মনস্টারল্যাব এন্টারপ্রাইজ সলিউশন্স লিমিটেড, ডিজিকন টেকনোলজিস পিএলসি, সিলভার স্পন্সর মাই আউটসোর্সিং লিমিটেড, আর্থ নেক্সট টেকনোলজিস লিমিটেড, মিতালি ইন্টারন্যাশনাল, অ্যাপোলো গ্লোবাল রিসার্চ অ্যান্ড কনসালটেন্সি, এবং অটোমেশন সার্ভিসেস লিমিটেড।

সবশেষে, শিল্পীদের মনোমুগ্ধকর সংগীতে পরিপূর্ণ এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শেষ হয় এবারের বাক্কো মেম্বারস মিট ২০২৪।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *