বুধবার, ডিসেম্বর ৭Dedicate To Right News
Shadow

জাবি শিক্ষার্থীকে মারধরের প্রতিবাদে ঢাকা-আরিচা সড়ক অবরোধ

Spread the love

জাবি প্রতিনিধি

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের দুজন শিক্ষার্থীকে মারধরের অভিযোগে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ করেছে জাবি শিক্ষার্থীরা। ১০ এপ্রিল রবিবার সন্ধ্যার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর হলের শিক্ষার্থীরা অভিযুক্তদের বিচারের দাবিতে এ অবরোধ করেন।

আন্দোলনকারীরা জানায়, ১০ এপ্রিল টিকা নেয়ার নির্ধারিত দিন থাকায় সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যান বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন ৪৪তম ব্যাচের নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের মাজেদুর রহমান ও একই হলের একই ব্যাচের দর্শন বিভাগের শিক্ষার্থী ইমন। ইতোমধ্যে সময় শেষ হয়ে গেলে টিকাকেন্দ্রে ৩-৪ জন ব্যক্তির টিকাগ্রহণ বাকি থাকে। এসময় শিক্ষার্থীদ্বয় তাদেরকে টিকা প্রদানের অনুরোধ করলে কেন্দ্রে অবস্থানরত রেড ক্রিসেন্ট ভলান্টিয়ারদেররা জাবি শিক্ষার্থী শুনে ‘রূঢ়’ আচরণ করেন। শিক্ষার্থীদের সাথে বাক-বিতন্ডার এক পর্যায়ে মারধর করা শুরু করেন। মারধর করতে করতে টেনে হিঁচড়ে নিচে নামিয়ে আনেন।

এরপর ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা সাভার মডেল থানায় মামলা করতে গেলে তাদেরকে সরকারি কাজে বাঁধাদানের অভিযোগে পাল্টা মামলার হুমকি দেওয়া হয়। এরপর ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীরা এনাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি হন। পরবর্তীতে সন্ধ্যা ৭ টার দিকে অভিযুক্তদের বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক সংলগ্ন ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ করলে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়।

খবর পেয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আ স ম ফিরোজ উল হাসান ও শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ঘটনার উপযুক্ত বিচার হবে বলে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীদের আশ্বস্ত করেন। শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়কে বাদী হয়ে মামলা করার দাবি জানায়। এসময় প্রক্টর ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার ও সাভার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার বরাত দিয়ে বলেন মামলা রেকর্ড হবে এবং উপযুক্ত শাস্তি নিশ্চিতে সহযোগিতা করবেন তারা। পরে ৮.৩০ এর দিকে শিক্ষার্থীরা অবরোধ প্রত্যাহার করেন।

মামলার ব্যাপারে সাভার মডেল থানার দায়িত্বরত কর্মকর্তা খান শাহরিয়ার বলেন, ‘এখনো মামলা রেকর্ড হয় নি, তবে ব্যাপারে মামলার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন। অবশ্যই মামলা হবে।’

সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা ডা. সায়েম হুদা বলেন, আমরা যেখানে ২৩ লক্ষ মানুষকে টিকা দিয়েছি, সেখানে এ ধরনের কিছু কাম্য নয়। ইতোমধ্যেই পুরো রেড ক্রিসেন্ট টিমকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। আর তারা সরকারি কেউ না হওয়ায় এর বেশি কিছু করা সম্ভব হয় নি। শিক্ষার্থী দুজনের চিকিৎসার সার্বিক খোঁজ খবর রাখছি। আশা করি কাল সকালে তাঁরা হলে ফিরতে পারবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *