সোমবার, মে ২৭Dedicate To Right News
Shadow

‘এলভিস’ আসছে স্টার সিনেপ্লেক্সে

Spread the love

পর্দায় আসছে রক এন রোলের রাজা খ্যাত কিংবদন্তী ব্রিটিশ সংগীতশিল্পী এলভিস প্রিসলির জীবনীভিত্তিক চলচ্চিত্র ‘এলভিস’। ওয়ার্নার ব্রাদার্সের পরিবেশনায় আগামী ২৪ জুন যুক্তরাষ্ট্রসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ছবিটি মুক্তি পাবে। একই দিনে বাংলাদেশের স্টার সিনেপ্লেক্সেও মুক্তি পাবে কাঙ্খিত এ ছবি। এ উপলক্ষে একটি প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে স্টার সিনেপ্লেক্স। নিজের কন্ঠে এলভিস প্রিসলির যে কোন একটি গান (সর্বোচ্চ দৈর্ঘ্য ১ মিনিট) কাভার করে ফেসবুক অথবা ইনস্টাগ্রাম-এ #StarCineplex এবং #ElvisBD হ্যাশট্যাগ দিয়ে পোস্ট করতে হবে। সেখান থেকে পোস্টের এনগেজমেন্ট এবং বিচারকদের রায়ের ভিত্তিতে বিজয়ী পাবেন একটি Yamaha Pacifica Guiter। এ ছাড়া সেরা পাঁচজন পাবেন আকর্ষণীয় পুরস্কার। ৩০ জুন পর্যন্ত এই অফার থাকবে বলে জানায় স্টার সিনেপ্লেক্স কতৃপক্ষ।

বাজ লারম্যান পরিচালিত ছবিটিতে নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছেন অস্টিন বাটলার। আমেরিকান এই অভিনেতা অভিনয়ের পাশাপাশি গানও করেন। এই অভিনেতাকেই এলভিস প্রিসলি চরিত্রে পছন্দ করেছেন ছবির পরিচালক বাজ লারম্যান। গান জানাটা বাটলারকে এই চরিত্রে এগিয়ে দিয়েছে। অস্টিনের আগে বাজ অডিশন নিয়েছিলেন আরও কিছু অভিনেতার। তাদের মধ্যে ছিলেন মাইলস টেলার, হ্যারি স্টাইলসের মতো তারকাও। এলভিসের সংগীত জীবনে অনতম গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিটি হলেন তার ম্যানেজার টম পার্কার। ছবিতে এই টম পর্কারের কথা ধরেই এগিয়ে যাবে সিনেমা। এই চরিত্রে অভিনয় করেছেন টম হ্যাঙ্কস। এলভিসের স্ত্রী প্রিসিলা প্রিসলি হিসেবে কাজ করেছেন অস্ট্রেলিয়ান তারকা অলিভিয়া ডিজঞ্জ। অন্যদিকে, ২০১৩ সালে ‘দ্য গ্রেট গ্যাটসবি’র মুক্তির ৯ বছর পর ‘এলভিস’ ছবির মাধ্যমে পরিচালনায় ফিরলেন বাজ লারম্যান। ৫৯ বছর বয়সী এই অস্ট্রেলিয়ান নির্মাতার আগের ছবিটি এবং ‘মৌলিন রোগ’ (২০০১) কান উৎসবের উদ্বোধনী ছবি হিসেবে দেখানো হয়।

এলভিস প্রিসলিকে বলা হয় রক অ্যান্ড রোলের রাজা। রক অ্যান্ড রোল, কান্ট্রি, গসপেল, রকাবিলি এবং আর অ্যান্ড বি। গানের এ পাঁচ ঘরানাতেই চমক সৃষ্টি করেছিলেন, রেখেছিলেন বিশেষ অবদান। ১০০ কোটি অ্যালবাম বিক্রি হয়েছিল তাঁর। একাধারে নায়ক ও গায়ক এলভিস প্রিসলি অভিনয় করেছিলেন ৩১টি পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে। পঞ্চাশের দশকে দারুণ সব গান উপহার দেন এলভিস প্রিসলি। প্রথম একক অ্যালবাম ‘এলভিস প্রিসলি’ বেরোলে সেটিও ভীষণ জনপ্রিয়তা পায়। টানা ১০ সপ্তাহ বিলবোর্ড টপ চার্টের এক নম্বরে ছিল অ্যালবামটি। ‘হাউন্ড ডগ’, ‘ডোন্ট বি ক্রুয়েল’, ব্লু শুডে সুজ’, ‘লাভ মি টেন্ডার’, ‘অল শুক আপ’ এবং ‘জেলহাউস রক’ দিয়ে পুরো দশক নিজের দখলে নেন এই শিল্পী। গানের জন্য গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ডস তাঁকে দিয়েছে আজীবন সম্মাননা। ১৯৫৬ সালে প্রিসলি অভিনয় শুরু করেন। সে বছর তাঁর প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য সিনেমা ‘লাভ মি টেন্ডার’ মুক্তি পায়। ছবিটি হিট হলে সিনেমার প্রযোজকেরা তাঁর পেছনে সিরিয়াল দিতে থাকেন। তারপরের দুই দশকের সংগীত ও সিনেমার ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লেখা হয়ে যায় প্রিসলির নাম। প্রায় ১৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের সিনেমার টিকিট বিক্রি হয়েছিল কেবল প্রিসলি নামে। ১৯৭৭ সালের জুন মাসে ইন্ডিয়ানায় কনসার্ট করেন প্রিসলি। এরপর কনসার্ট ছিল আগস্টের ১৭ তারিখ। তার আগের দিন প্রিসলিকে নিজের ঘরে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়। হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে ৪২ বছর বয়সে মারা যান প্রিসলি।

‘এলভিস’ সিনেমার বিষয়বস্তু কিংবদন্তি সংগীতশিল্পী এলভিস প্রিসলির জীবন এবং গানে তার অভূতপূর্ব খ্যাতি পাওয়া। রহস্যময় ম্যানেজার কর্নেল টম পার্কারের সঙ্গে তার ২০ বছরের জটিল সম্পর্কের আয়না দিয়ে দেখা হয়েছে এসব। সেই পথচলার কেন্দ্রবিন্দুতে ছিলেন এলভিসের জীবনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ও প্রভাবশালী ব্যক্তি প্রিসিলা প্রিসলি। এবারের কান চলচ্চিত্র উৎসবে দর্শকদের হৃদয় জয় করেছে ‘এলভিস’। গত ২৫ মে পালে দে ফেস্টিভাল ভবনের গ্র্যান্ড থিয়েটার লুমিয়েরে ছিল বাজ লারম্যান পরিচালিত ছবিটির ওয়ার্ল্ড প্রিমিয়ার। প্রদর্শনী শেষে অতিথি ও দর্শকরা টানা ১০ মিনিট দাঁড়িয়ে অভিবাদন জানান কলাকুশলীদের। বোদ্ধাদের পাশাপাশি সাধারণ দর্শকদেরও মন জয় করবে এ ছবি এমনটাই ধারণা করা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *