সোমবার, মে ২৭Dedicate To Right News
Shadow

দীপ্ত টিভির ডাবিং সংলাপ রচয়িতা

Spread the love

সম্প্রচারের শুরু থেকেই দীপ্ত টেলিভিশন নানান তুর্কি সিরিয়াল বাংলায় ডাবিং করে সম্প্রচার করছে। সুলতান সুলেমান থেকে শুরু করে ফাতমাগুল, ফেরিহা, বাহার, আমাদের গল্প এমন প্রতিটা সিরিয়ালই নিখুঁত ডাবিং এর জন্য দর্শকদের কাছে বিপুল জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। বলা যায় ডাবিং শিল্পে এক নতুন মাত্রা যোগ করেছে দীপ্ত টেলিভিশন।

দীপ্ত টিভিতে সম্প্রচারিত ডাব করা সিরিয়ালগুলো দর্শকের কাছে যে এতটা জনপ্রিয় তার অন্যতম কারণ হচ্ছে এর সুনিপুণ এবং মাধুর্যপূর্ণ অনুবাদ। এই অনুবাদকে বলা হয় যে কোনো ডাবিং সিরিয়ালের প্রাণ। এর ওপর ভিত্তি করেই কণ্ঠশিল্পী,শব্দ-সম্পাদক, প্রযোজক এবং সংশ্লিষ্ট সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় দাঁড়ায় ডাবিং সিরিয়াল নামক এক চমৎকার ইমারত। আজ আমরা জানবো অনুবাদের কাজে নিয়োজিত এই নেপথ্যের কারিগররা কীভাবে তাদের কাজ সম্পাদন করেন।

দীপ্ত টেলিভিশনে অনুবাদের কাজে নিয়োজিত আছেন নিবেদিতপ্রাণ এবং সুদক্ষ এক ঝাঁক তরুণ-তরুণী। যাদেরকে বলা হয় অনূদিত সংলাপ রচয়িতা। অনেকে ভাবতে পারেন অনুবাদের কাজ, এ আর এমন কঠিন কী! কিন্তু বিদেশী নায়ক-নায়িকার মুখে সহজ সাবলীল বাংলা সংলাপ ফুটিয়ে তোলার জন্য এদের বহু কাঠখড় পোড়াতে হয়। মূলত বিদেশী ভাষার মূল স্ক্রিপ্ট হাতে পাওয়ার সাথে সাথেই শুরু হয় এক কর্মযুদ্ধ।

স্ক্রিপ্টের প্রাথমিক বিন্যাস তথা টাইমলাইন সংযোজন, সংলাপগুলো কেন্দ্রিয়করণের কাজটা হয় একজনের মাধ্যমে। তৈরি করা হয় স্ক্রিপ্টের চরিত্রসমূহের তালিকা, চরিত্রের সম্বোধন তালিকা এবং চরিত্রের সংক্ষিপ্ত বিবরণ। তারপর শুরু হয় মূল কাজ তথা অনুবাদের কাজ। শব্দচয়নে এবং সংলাপ গঠনের সময় সংলাপ রচয়িতাদের মূল লক্ষ্যই থাকে প্রাঞ্জলতা বজায় রাখা। সেই সাথে এ দেশের আর্থ-সামাজিক প্রেক্ষাপটের কথা মাথায় রেখে সংলাপের স্থানীয়করণ করতে হয়।

তাছাড়া ভাষান্তর করার সময় সংলাপের দৈর্ঘ্য ঠিক রেখেও সংলাপ সাজাতে হয়। ডাবিং এর ভাষায় যেটাকে বলা হয় লিপ সেট। এছাড়াও স্ক্রিপ্টে মাঝে মাঝে ঘটে কবিতা বা গানের আবির্ভাব। তখন পরিবেশনাটা আরও চমৎকার করে তুলতে কাউকে হতে হয় কবি, কাউকে বা গীতিকার! এভাবেই এই বিশাল কর্মযজ্ঞ দক্ষতার সাথে সম্পাদন করেন দীপ্তর অনূদিত সংলাপ রচয়িতার দল।

বর্তমানে দীপ্ত টেলিভিশনে নয় জনের একটি সুদক্ষ দল অনুবাদের কাজটি সম্পাদন করছেন। এদের পরিচালনার দায়িত্বে আছেন তানজিনা রহমান বর্ণা এবং মাহমুদুল হাসান মুরাদ। এছাড়াও এ দলের অন্যান্য সদস্যরা হলেন ইব্রাহিম খলিল, শারমিন হোসেন রিমা, আইরিন পারভীন, শামীমা আক্তার সায়মা, শামীমা সুলতানা, সামসুন্নাহার সাফিয়া এবং রেজওয়ান মোর্শেদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *