বুধবার, ডিসেম্বর ৭Dedicate To Right News
Shadow

বাংলা গান প্রযোজনায় টিএম রেকর্ডস

Spread the love

বাংলাগানকে বিশ্বের কাছে পৌঁছে দিতে নিরলস শ্রম দিয়ে যাচ্ছেন ‘পাওয়ার কাপল’খ্যাত কৌশিক হোসেন তাপস ও ফারজানা মুন্নি। তাদের যৌথ প্রয়াসে সৃষ্টি হয়েছে দেশের প্রথম এইচডি মিউজিক চ্যানেল গানবাংলা। বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক মিউজিক প্লাটফর্ম হিসেবে পৃথিবীজোড়া প্রশংসিত আজ ‘উইন্ড অব চেঞ্জ’। ভালোবাসার সুতোয় বেঁধেছেন দেশের পুরো সঙ্গীতাঙ্গনকে। এবার সেই ভালোবাসার নিদর্শনস্বরূপ তাদের নামের অদ্যাক্ষরে সৃষ্টি হল আন্তর্জাতিকমানের নতুন বাংলা গান উপহার দেয়ার সংগীত প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান টিএম রেকর্ডস।

রোববার রাজধানীর মহাখালীতে অবস্থিত এসকেএস টাওয়ারের স্টার সিনেপ্লেক্স-এ সংগীতশিল্পীদের জন্য আয়োজিত এক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে যাত্রা শুরু করলো নতুন এই রেকর্ড লেবেল। অনুষ্ঠানে শতাধিক সংগীতশিল্পীর উপস্থিতিতে টিএম রেকর্ডসের উদ্বোধন ঘোষণা করেন ভারতীয় হাই কমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী।

তিনি বলেন, “আমাদের জীবন ফুরিয়ে যায়, কিন্তু শিল্প বেঁচে থাকে। শিল্পীরা বর্তমান বাস্তবতায় বসবাস করে আমাদের অন্য এক বাস্তবতার সন্ধ্যান দেন। তারা ইশ্বরের আশীর্বাদপুষ্ট। আমার সৌভাগ্য হয়েছে গানবাংলা পরিবারের সঙ্গে মেশার। তাদের পরিবেশনা উপভোগ করার। এমন আন্তরিক পরিবেশে আমাকে আমন্ত্রণ জানানোর জন্য আমি ধন্যবাদ জানাই সবাইকে। টিএম মানে হোক ‘ট্রিমেন্ডাস মিউজিক’(অসাধারণ সংগীত), বাংলা গানকে অনন্য মাত্রায় পৃথিবীর কাছে উপস্থাপন করতে কাজ করে যাবে টিএম রেকর্ডস তার জাদু দিয়ে-এটা আমি বিশ্বাস করি।”

সংগীতের কোন সীমানা নেই, নেই ভাষার সীমাবদ্ধতা। সে কথা মনে করিয়ে দিয়ে টিএম রেকর্ডস-এর চেয়ারপার্সন ফারজানা মুন্নী বলেন, “সারা দুনিয়া এখন অনেকদূর এগিয়ে গেছে। আমরা পিছিয়ে থাকতে চাই না। ওয়ার্ল্ড মিউজিক ইন্ডাস্ট্রি যেভাবে পরিচালিত হচ্ছে, যেসব পরিবর্তনগুলো আসছে আমরা চাই আমাদের বাংলা গানেও সেই পরিবর্তনগুলো আসুক। আমাদের ‘উইন্ড অব চেঞ্জ’-ইতিমধ্যেই বিশ্বজুড়ে বাংলা গানে উদাহরণ তৈরি করেছে। আমাদের দেশের তরুণরা যেমন অন্য ভাষার গান পছন্দ করছে, গাইছে-আমরাও চাই আমাদের বাংলা গান বিশ্বজুড়ে মানুষের মুখে মুখে ফিরুক। এখন আমাদের এগিয়ে যাওয়ার সময়। বাংলা গানকে সুরে-কথায় এবং মিউজিক ভিডিও প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে অনেকদূর পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যেই টিএম রেকর্ডস এর যাত্রা শুরু হল।”

দেশের সেরা প্রতিভাবান শিল্পীদের সঙ্গে নিয়ে, নিত্য নতুন গান ও তার আন্তর্জাতিক মানের উপস্থাপনার নজির সৃষ্টি করতে চায় টিএম রেকর্ডস। সে লক্ষ্যে ইতিমধ্যেই কাজ শুরু করেছে প্রতিষ্ঠানটি। সুরে-কথায় শ্রোতাদের মুগ্ধ করতে দেশি শিল্পীদের কন্ঠে ও বিশ্বমানের যন্ত্রানুষঙ্গে ইতিমধ্যেই প্রায় অর্ধশতাধিকেরও বেশি গান রেকর্ড সম্পন্ন হয়েছে। মিউজিক ভিডিও নির্মাণের কাজও এগিয়ে চলছে দেশে ও দেশের বাইরে। যাতে অংশগ্রহণ করছেন দেশ-বিদেশের বিখ্যাত তারকারা।

কৌশিক হোসেন তাপস বলেন, “বাংলা গানের অডিও এবং ভিজুয়াল কেমন হওয়া উচিত তা যেন টিএম দেখলেই বোঝা যায়-সে উদাহরণ বা বেঞ্চমার্ক সৃষ্টি করতে চাই আমরা। আমরা যাদের মনে করি সবচেয়ে টেলেন্টেড, যাদের যোগ্যতা ও মেধা আছে, তাদের যেভাবে তুলে ধরলে পুরো পৃথিবী অবাক বিস্ময়ে তাকিয়ে দেখবে, শুরুতেই আমরা তাদের দিকে ফোকাস করছি। পাশাপাশি বাংলাদেশের পঞ্চাশ বছরে মিউজিক ইন্ডাস্ট্রি আজকের অবস্থানে আসার পথে যে যে গুণী তারকা বা শিল্পীদের অবদান রয়েছে আমরা তাদের সঙ্গে নিয়েও এগুতে চাই। বিশেষ করে যারা যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে যেতে পারছেন, নিজেকে কালোত্তীর্ণ করতে পেরেছেন কিংবা তরুণদের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করতে পারছেন আমরা তাদেরকেও উপস্থাপন করতে চাই।”

টিএম রেকর্ডস-এর যাত্রা শুরুর দিনে বড়পর্দায় প্রদর্শিত হয় চারটি গানের আন্তর্জাতিক মানের মিউজিক ভিডিও। উপস্থিত শিল্পীরা টিএম, টিএম স্লোগান তুলে করতালির মাধ্যমে টিএম রেকর্ডসের এমন চমকপ্রদ আবির্ভাবের প্রতি মুগ্ধতা প্রকাশ করেন।

টিএম রেকর্ডস জানায়, চলতি মাস থেকেই নিয়মিত বিরতিতে গানগুলো চমক আকারে শ্রোতাদের সামনে উপস্থাপন করতে যাচ্ছে তারা। নতুন রেকর্ড লেবেল সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানাতে খুব শিগগিরই গণমাধ্যমকর্মী ও শুভানুধ্যায়িদের সম্মানে একটি বিশেষ আয়োজন নিয়ে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হবে টিএম পরিবার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *