বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ১৮Dedicate To Right News
Shadow

সাহিত্য

কবিতাঃ “ভালোবাসা শব্দটা”

কবিতাঃ “ভালোবাসা শব্দটা”

শিরোনাম, সাহিত্য
:: আবদুল আওয়াল :: ভালোবাসা শব্দটা নিজেই এক মধুর আবাস। ঘাঁটলে সেথায় পাওয়া যায় হরেক রকম প্রকাশ। ভালোবাসা সকলের তরে আসে আপন করে। ছেড়ে দিলে দেখবে তাকে মরিচা কেমন ধরে। আকাশ যেমন ভালোবেসে ঘটায় নীলের প্রকাশ। পৃথিবীকেও ভালোবাসে ঐ মায়াবিনী আকাশ। মাটির মানুষ আগ বাড়িয়ে ভালো বাসতে তাকে খেই হারিয়ে ঘুরে বেড়ায় আপনার চারিদিকে। পায়না কোথাও ভালোবাসা ঘিরে থাকে ধোঁয়াশা। জীবন ভর যুদ্ধ করে ফল মিলে তার হতাশা। আপনার আমিকে সে, হারিয়ে খুঁজে সকাল সাঝে দূর আকাশে মেঘের দেশে, মায়া ভরা নীলের মাঝে। চিলে কান নিল শুনে ছুটছে সে যে চিলের পিছে সময় শেষে পড়ল এসে ঠিক যেমন তার সকাশে। ভালবাসা নয় তো অত সোজা ভাবছি মনে মনে। থাকে যদি মনটা তোমার ছেড়ে দাও তার কানেকশনে।...
‘স্মরণে শেখ মুজিব: সহস্রাব্দের শ্রেষ্ঠ বাঙালী’ দিয়ে যাত্রা শুরু ইউল্যাব প্রেসের

‘স্মরণে শেখ মুজিব: সহস্রাব্দের শ্রেষ্ঠ বাঙালী’ দিয়ে যাত্রা শুরু ইউল্যাব প্রেসের

শিরোনাম, সাহিত্য
ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস বাংলাদেশে (ইউল্যাব) এর নতুন সংযোজন 'ইউল্যাব প্রেস' এর যাত্রা শুরু হলো। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে বিভিন্ন লেখকদের সংকলন 'স্মরণে শেখ মুজিব: সহস্রাব্দের শ্রেষ্ঠ বাঙালী' বইয়ের মোড়ক উন্মোচনের মাধ্যমে যাত্রা শুরু হয় ইউল্যাব প্রেসের। বৃহস্পতিবার (৭ অক্টোবর) রাজধানীর মোহাম্মদপুরে ইউল্যাবের স্থায়ী ক্যাম্পাসে এ মোড়ক উম্মোচন এবং ইউল্যাব প্রেসের উদ্বোধন করেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, এমপি। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শেখ মুজিবুর রহমান জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন বাস্তবায়ন কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ড. কামাল আব্দুল নাসের চৌধুরী, সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইউল্যাব বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সদস্য কাজী নাবিল আহমেদ, এমপি। বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে ১৩ জন লেখকের লেখা সংকলিত করে 'স্মরণে শেখ মুজিব: সহস্রাব্দের শ্রেষ্ঠ বাঙালী' প্রকাশ করা হয়েছে। বইটি সম্পাদনা করেছেন জাতীয়...
মহসিন আহমেদের কবিতা “অসমাপ্ত সোলেনামা”

মহসিন আহমেদের কবিতা “অসমাপ্ত সোলেনামা”

সাহিত্য
রসালো ফলের ন্যায় দহনকালের সীমারেখা অসমাপ্ত সংগীতের আদিম পুরাণে ধ্যানরত শৈল্পিক বয়ানে লেখা খোলা চোখে যায় না তো দেখা সহস্র সাধক আজ অনুমান বিন্দুতে আহত ঢেউফল মিলনের ত্রিবেণী পরেছে মধুরাতে ত্রিফলার নির্যাসেও আরোগ্য রচনা হতে পারে তাম্রলিপি থেকে যদি অনুসন্ধানী আকল হাতে উদ্ধার হয় কখনো তিয়াসাযুক্ত মরুমিনারে থানকুনি রস যদি জীবনের গতি খুঁজে ফেরে ত্রিশূলে বাড়ায় জানি রক্তের সমূহ গতিকলা দরোজার খিল ভেঙে সহসাই বলে উঠি কে রে? তরঙ্গের মহিমায় চাইলেও যায় না তো চলা ত্রিপদী পাঠের কালে শোষকের তিরোধান হলে তপোবন জেগে ওঠে, পড়ে থাকে অসমাপ্ত সোলেনামা শালবনে অনায়াসে অবিরাম বহ্নিশিখা জ্বলে পাহাড়ের গুহা থেকে ভেসে আসে দারুণ দামামা। মহসিন আহমেদ: গীতিকার, বাংলাদেশ বেতার ও টেলিভিশন  ...
আরিফ বিদেলের কবিতা “আমি কবি”

আরিফ বিদেলের কবিতা “আমি কবি”

সাহিত্য
আমিতো বার বার আসিতে চাহিয়াছি উত্তপ্ত মরুসাগরে নৌকা বহিয়াছি তুমি তীরে এলে না, ফিরে এলে না। আমি তো সেই সাগর সেচে পাড়ি দিলাম নদী যদি তুমি বারেক ফিরে তাকাতে যদি আমার এ শুন্য হৃদয়ে উঠতো যে ঝড় তাতে গড়ে উঠতো কত যে বালিচর তুমি তাকিয়ে দেখিতে যদি। কখনও রাতের শেষে অমানিষার আধারে কখনও বেলাশেষে রক্তিম দিক চক্রবালে একেছি তোমার ছবি। তোমার ভাবালুতায় আজ আমি কবি। তুমি একবার চেয়েও দেখিতে যদি।...
ফাতেমাতুজ জোহরা’র কবিতা “নিষ্ফলন”

ফাতেমাতুজ জোহরা’র কবিতা “নিষ্ফলন”

সাহিত্য
ভাবনার বেড়াজালে শত শত, মন হতে থাকে ক্ষত বিক্ষত। দুঃখের অমানিশা হয় না শেষ, ধৈর্য এখন খন্ডিত বিশেষ। কেন চিন্তাগুলো পিছু ছাড়ে না, আচমকা খালি ঝড়ো হাওয়া। আর পারছি না আমি সইতে, অব্যক্ত মনকে পারিনা বোঝাতে। প্রতিনিয়ত হচ্ছে হৃদয়ে রক্তক্ষরণ, তবু হয়না ভাবাবেগের চিরন্তন মরণ। একটু একটু করে শক্তি যোগান দেই মনে, বেঁচে থাকবো যতদিন পরীক্ষা দিবো ক্ষণে ক্ষণে। যেটুকু আশা করে সামনে এগুই, আশা ব্যাহত হবে ভেবে দুপা পিছুই। মনে সাহস ও ভরসার প্রদ্বীপ জ্বালিয়ে, এগুতে হবে সব প্রতিকূলতা ছাপিয়ে। হয়তো প্রতিফল হতে পারে নিরাভরণ, তবু মৌনিক স্বপ্নের হতে দিবো না মরণ। হৃদ্যতার অনির্বাণকে দিব স্বাগতম, দাঁড়িয়ে থেকে এই পাড়ে নিষ্ফলন।...
রেজাউর রহমান রিজভী’র কবিতা “অবুঝমনা”

রেজাউর রহমান রিজভী’র কবিতা “অবুঝমনা”

শিরোনাম, সাহিত্য
কখনো সুযোগ হয়নি তার চোখে চোখ রাখার হয়নি সুযোগ কখনো হাতটি ছুঁয়ে দেখার, কখনো হয়-ই নি সুযোগ তার হৃদয়ে থাকার কিংবা দুঃসাহসিকতায় তাকে জড়িয়ে ধরার। তাহলে তাই বলে কি তাকে ভালোবাসতেও মানা? নাহ, তা তো কখনো নয়। বরং হৃদয় উজাড় করা ভালোবাসা তো কেবল তারই জন্য। সে বুঝুক, অথবা না বোঝার ভান করুক কি-ই বা আমার তাতে আসে যায়! অবুঝমনা হয়ে থাকুক এ মনের অন্তরায়।...
মূর্তজা খান লোদীর কবিতা “লাল খাতা”

মূর্তজা খান লোদীর কবিতা “লাল খাতা”

সাহিত্য
লালসালু মোড়া খাতায় নেই, আর কোনো কবিতার অন্তমিল। সাদা পাতায় রয়ে যায়, জাবেদা বা শুধুই রেওয়া মিল। বিদ্রোহী কবি নজরুলের এই দেশে, চাটুকারিতা ভর করে উন্নয়নের বেশে। আরেকটি বার সম্ভবত, বেনিয়া বা বেহায়া শাসন পেলে, কবিরা নিশ্চয় প্যাপিরাসের বুকে প্যালিকনে ঝড় তোলে। মোসাহেবের পরামর্শ, একটু যদি ভালো কথা বলতেন, ঘি, মাখনে কব্জি ডুবিয়ে পলান্ন টা খেতেন! অবাক চোখে কবি বলে, আমি বরং পান্তা ভাতেই খুশি, তুমিও যদি একটু চেষ্টা করতে, অত্যাচারীর স্তুতিতে তবে কি আর স্বাভিমানকে জলাঞ্জলী দিতে ! সুখ শান্তির আকাশ কুসুম লম্বা খতিয়ান সে না হয় জারি থাকুক সরকারি কাগজে বয়ান। কবি কেনো আজ তবে, সেই মিছিলে শামিল! তার কাজ তো খুজে পাওয়া সব ছন্দের অমিল!! কে যেনো বলেছিলো, এত ভালো সেতো ভালো না, টানাপোড়েন না থাকলে সাম্য থাকে না। খারাপ কিছু খুজে পেতেও পরিবর্তন টা লাগে কবির কলম চালু থাকুক, ছিলো যেমন আগ...