রবিবার, জুলাই ২১Dedicate To Right News
Shadow

উপ-সম্পাদকীয়

ক্রাইসিস কমিউনিকেশন

ক্রাইসিস কমিউনিকেশন

উপ-সম্পাদকীয়, শিরোনাম
রাজীব ভৌমিক ক্রাইসিস কমিউনিকেশন নিয়ে কখনো কিছু লিখিনি। লেখায় আমি সবসময় নানারকম উদাহরণ ব্যবহার করি, যার প্রায় সবই আমার ক্যারিয়ারের বিভিন্ন অভিজ্ঞতার আদলে লেখা। কিন্তু, ক্রাইসিস নিয়ে লিখতে গেলে এরকম উদাহরণ দেয়া কঠিন কারণ উদাহরণের সঙ্গে আসল ঘটনা যদি একটুও মিলে যায়, তাহলে যে কেউ ধরে ফেলতে পারে কোন প্রতিষ্ঠানের কোন ক্রাইসিসের কথা বলছি। সেটা হবে অপেশাদার আচরণ কারণ তাতে কর্মক্ষেত্রের গোপনীয়তা নষ্ট হবে। তারপরও, সাম্প্রতিক কিছু ঘটনা দেখে মনে হলো, ক্রাইসিস কমিউনিকেশনে আমার অভিজ্ঞতাগুলো লিখে রাখলে কারো কারো কাজে লাগতে পারে। কোনো ক্রাইসিসই একা ম্যানেজ করা যায় না। টিমমেটদের উপর বিশ্বাস রাখতে হয়, নাহলে বিপদ বাড়ে। যাদের সঙ্গে বিভিন্ন সময়ে একসাথে মিলে ক্রাইসিস ম্যানেজ করেছি, তাদের নাম সঙ্গত কারণেই বলতে পারছি না। তবে তাদের প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞতা কারণ তাদের কাছ থেকে অনেক কিছু শিখেছি। ক্রাইসিসের ...
তামাক কোম্পানীর হস্তক্ষেপ থেকে শিশুদের রক্ষা করুন

তামাক কোম্পানীর হস্তক্ষেপ থেকে শিশুদের রক্ষা করুন

উপ-সম্পাদকীয়, শিরোনাম
রেজাউর রহমান রিজভী সাম্প্রতিক সময়ে আমাদের দেশে তামাক কোম্পানীগুলো যেভাবে নানা প্রকার কুটকৌশলে তাদের ব্যবসার প্রসার করছে তাতে আগামী প্রজন্ম বলা যায় রীতিমতো হুমকির মুখে রয়েছে। অথচ আজকের শিশুই আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। ফলে আজকের দিনের শিশুটিকে টার্গেট করলে আগামী দিনে তামাক কোম্পানীর নিয়মিত ক্রেতা হিসেবেও হয়তো তাকে দেখা যেতে পারে। আর এই বিষয়টিকে সামনে রেখেই শিশুদেরকে প্রলুব্ধ করে, তাদের হাতের নাগালের মধ্যে তামাকজাত পণ্য বিক্রয় করা হচ্ছে। আবার তামাকপণ্যের সহজলভ্যতাও একটি বড় সমস্যার কারণ। কারণ এতে যে কোন শিশুই তামাকপণ্য কিনতে পারছে। স্কুল কলেজের আশেপাশে ভ্রাম্যমাণ বিক্রেতা ছাড়াও লোকাল দোকানগুলোতে অবাধে তামাকপণ্য কেনার সুযোগ থাকায় ১৮ বছরের কম বয়সী শিশুরা খুব সহজেই তামাকপণ্যের প্রতি আসক্ত হবার সুযোগ পাচ্ছে। অথচ বিষয়টি সম্পর্কে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এখনো উদাসীন। বিশ^জুড়ে প্রতিরোধযোগ্য মৃত্যুর প্রধ...
শিশুদের সুরক্ষা ও তামাক কোম্পানির হস্তক্ষেপের প্রাসঙ্গিকতা

শিশুদের সুরক্ষা ও তামাক কোম্পানির হস্তক্ষেপের প্রাসঙ্গিকতা

উপ-সম্পাদকীয়, শিরোনাম
৩১ মে বিশ্ব তামাকমুক্ত দিবস। এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় ‘Protecting Children from Tobacco Industry Interference'. বাংলায় ভাবানুবাদ করা হয়েছে ‘তামাক কোম্পানির হস্তক্ষেপ প্রতিহত করি, শিশুদের সুরক্ষা নিশ্চিত করি’। এবারে যে থিম নির্ধারণ করা হয়েছে বর্তমান সময়ের প্রেক্ষিতে এটির বিশেষ তাৎপর্য আছে। আজকের আলোচনায় সেটিই তুলে ধরতে চায়। শিশুরা আমাদের ভবিষ্যৎ; তাদের সুরক্ষা নিশ্চিত করা আমাদের সাংবিধানিক দায়িত্ব। ২০২২ সালের তথ্য অনুসারে, বিশ্বব্যাপী, ১৩-১৫ বছর বয়সী অন্তত ৩৭ মিলিয়ন শিশু কোনো না কোনো ধরনের তামাক ব্যবহার করে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) গবেষণা বলছে, বাংলাদেশের প্রায় ১২ শতাংশ অপ্রাপ্তবয়স্ক শিশু-কিশোর ধূমপান করে থাকে; যাদের অধিকাংশের বয়স ১৩ থেকে ১৫ বছরের মধ্যে। ধূমপানে আসক্ত এই শিশুদের ৭৫ ভাগ ছেলে আর ২৫ ভাগ মেয়ে। ওয়ার্ল্ড পপুলেশন রিভিউয়ের ২০২৩ সালের তথ্য অনুসারে, বাংলাদেশে ১৫ বছরের ...
বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বের অনন্য দৃষ্টান্ত

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বের অনন্য দৃষ্টান্ত

উপ-সম্পাদকীয়, শিরোনাম
জুনাইদ আহমেদ পলক একটি দেশকে উন্নয়ন ও অগ্রগতির পথে পরিচালিত করার জন্য সর্বাগ্রে প্রয়োজন ভিশনারি নেতৃত্ব। তাদের ভাবনা ও উদ্যোগের মধ্যে প্রতিফলিত হয় আগামী বিশ, পঁচিশ, পঞ্চাশ ও একশ বছরে দেশকে উন্নয়নের কোন স্তরে নিতে হবে। বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫৩ বছরের রাষ্ট্র পরিচালনার ইতিহাসের পর্যালোচনা করলে আমরা দেখতে পাই শুধুমাত্র বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গবন্ধু কন্যা -এই পরম্পরা নেতৃত্ব ভিশনারি দৃষ্টিভঙ্গি থেকে রাষ্ট্র পরিচালনার নানা উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের এসব উদ্যোগের মূলে ছিল তাঁর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ে তোলা এবং বাংলাদেশকে বিশ্বে একটি মর্যাদাশীল রাষ্ট্র হিসেবে প্রতিষ্ঠা করা। আর মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সকল উদ্যোগের মূলে রয়েছে বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত কাজ সম্পন্ন করা এবং ২০৪১ সাল নাগাদ উন্নত-সমৃদ্ধ স্মার্ট সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠা করা। এ নিবন্ধে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গবন্ধু কন্যার দ...
রাজনৈতিক অস্থিরতা, অন্ধকারের হাতছানি দিচ্ছে বাংলাদেশের পর্যটন খাতকে

রাজনৈতিক অস্থিরতা, অন্ধকারের হাতছানি দিচ্ছে বাংলাদেশের পর্যটন খাতকে

উপ-সম্পাদকীয়, শিরোনাম
মোঃ কামরুল ইসলাম এভিয়েশন এন্ড ট্যুরিজম ইন্ডাস্ট্রি অপেক্ষার প্রহর গুনে উইন্টার সিজনের জন্য। সামার সিজনের খরা কাটিয়ে শীতের আগমনে প্রতীক্ষায় থাকে সকল ভ্রমণপিপাসু পর্যটকরা। তাদেরকে বরণ করার জন্য অপেক্ষায় থাকে এয়ারলাইন্স, ট্যুরিস্ট স্পট, হোটেল, মোটেল আর রিসোর্টগুলো। রঙ্গীণ সাজে নিজেকে সাজিয়ে তোলে এভিয়েশন এন্ড ট্যুরিজম ইন্ডাস্ট্রি। কোভিড মহামারির ধাক্কা সামলিয়ে উঠার শুরুতেই রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের ডামাডোল, ইসরাইল-ফিলিস্তিন সংকট মধ্যপ্রাচ্য ছাড়িয়ে এই যুদ্ধ আজ বৈশ্বিক সংকটে রূপ নিয়েছে। আর জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে বাংলাদেশের রাজনৈতিক অস্থিরতা পর্যটন খাতকে অন্ধকারের হাতছানি দিচ্ছে। করোনা মহামারির সময় এই খাতের প্রায় ৪০ লক্ষ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। অক্টোবরের শেষ সপ্তাহ থেকে শীতকালীন সময়সূচী অনুযায়ী এভিয়েশন এন্ড ট্যুরিজম ইন্ডাস্ট্রির পিক সিজন শুরু হয় অথচ সিজনের শুরুতেই বাংলাদেশের পর্যট...
বাজার নিয়ন্ত্রণে আমদানির বিকল্প উদ্যোগ গ্রহণই বেশি জরুরী

বাজার নিয়ন্ত্রণে আমদানির বিকল্প উদ্যোগ গ্রহণই বেশি জরুরী

উপ-সম্পাদকীয়, শিরোনাম
রেজাউর রহমান রিজভী দেশের অস্থির বাজার নিয়ন্ত্রণে গত ১৪ সেপ্টেম্বর খুচরা বাজারে প্রতিটি ডিমের দাম ১২ টাকা, আলুর দাম প্রতি কেজি ৩৫ টাকা থেকে ৩৬ টাকা এবং পেঁয়াজের দাম ৬৪ টাকা থেকে ৬৫ টাকা নির্ধারণ করে দেয় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। কিন্তু বাস্তবচিত্র পুরোই উল্টো। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ঘোষণার পর থেকে বাজারে নতুন দর কার্যকর হওয়ার কথা থাকলেও এই তিন পণ্যই বিক্রি হচ্ছে আগের বাড়তি দামেই। উপরন্তু ব্যবসায়ী সিন্ডিকেটের দাপটে কোথাও কোথাও পণ্যের সরবরাহও আগের মতো নেই। বিশেষত আলু নিয়ে তো রীতিমতো তুঘলকি কারবার শুরু হয়েছে। গত ১৬ সেপ্টেম্বর ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এএইচএম সফিকুজ্জামান মুন্সীগঞ্জের হিমাগার পরিদর্শনের পর দেখতে পান চলতি বছরের এপ্রিলে এই আলুই ২৫ টাকা করে বিক্রি করা হলেও এখন তা ৪০ টাকা কেজি হিসেবে পাইকারী বিক্রি করা হচ্ছে। ফলে খুচরা বাজারে এই আলুই কোন কোন স্থানে ৫০ টাকা বা তার ...
ভারত কেন চীনের বন্ধু আওয়ামী লীগকে সমর্থন করে?

ভারত কেন চীনের বন্ধু আওয়ামী লীগকে সমর্থন করে?

উপ-সম্পাদকীয়, শিরোনাম
তারেক হোসাইন খান ভারত আওয়ামী লীগকে সমর্থন করে দলটি ভারতের `শত্রুরাষ্ট্র’ চীনের সহযোগী হওয়ার পরও। “শত্রুর শত্রু বন্ধু এবং শত্রুর বন্ধু শত্রু” কৌটিল্যের এই নীতি সর্বদা আন্তর্জাতিক রাজনীতিতে প্রযোজ্য নয়। যে কোন বিচারে যুক্তরাষ্ট্রের চাপের বিপরীতে আওয়ামী লীগের প্রধান রক্ষাকবচ চীন, ভারত নয়। ভারত চ‚ড়ান্তবিচারে যুক্তরাষ্ট্রের ইচ্ছা-অনিচ্ছাকে প্রাধান্য দিতে বাধ্য কেননা ভারতের অর্থনৈতিক ও সামরিক শক্তি এখন আর ৮০’র দশকের মতো চীনের সঙ্গে ম্যাচ করেনা। জন মিযারশাইমার-এর গ্রেট পাওয়ার ট্রাজেডি বা থুসিডাইডিসের পাওয়ার/ওয়ার ট্রাপ উভয়বিধ বিবেচনায় চীন-ভারত প্রতিযোগিতায় লিপ্ত আছে এবং থাকবে অপরের প্রভাবকে কমাতে/ধ্বংস করতে। এটি উনবিংশ ও বিংশ শতাব্দীতে ইউরোপে বৃটেন-জার্মানীর দ্বন্দ্বকে মনে করিয়ে দেয়। দক্ষিণ এশিয়ায় শ্রীলংকা, মালদ্বীপ ও নেপালে চীন এবং ভারতের পছন্দের দল ও নেতারা ভিন্ন। যেমন শ্রীলংকায় রাজাপা...
“কোন অডিও কোম্পানী আর কখনোই মাথা তুলে দাঁড়াতে পারবেনা”

“কোন অডিও কোম্পানী আর কখনোই মাথা তুলে দাঁড়াতে পারবেনা”

উপ-সম্পাদকীয়, শিরোনাম
আসিফ আকবর গত বাইশ বছর অডিও সার্কিটের সব ডাইমেনশনে কাজ করেছি। প্রাতিষ্ঠানিকভাবে ক্যাসেট সিডির যুগ গত হয়েছে ২০১০ সালেই। এখন ইউটিউবের যুগও ধুঁকছে, একটি গানে কোটি ভিউয়ে রিটার্ন বিশ হাজার টাকাও আসেনা। মিউজিক ভিডিওতে মোটা অঙ্ক বিনিয়োগ করে ভিউয়ের ইঁদুর দৌড় আপাতত শেষ। গানের প্রডিউসররা তাদের বিনিয়োগ নিয়ে ঝাঁপিয়ে পরেছিল নাটকের পিছনে, সেই খাতও মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। নাটকের ভিতরে গান ঢুকিয়ে আপৎকালীন অক্সিজেন দিয়ে গানের ব্যবসার দিনও শেষ। সব মিলিয়ে গানের বাজারে পেশাদার অডিও প্রযোজকরা এখন সরে যেতে বাধ্য হয়েছে, আর কখনোই ফিরে আসবে না। প্রযোজকদের দ্রুত মুনাফা অর্জনের ধান্দা আর গানের সাথে সংশ্লিষ্ট সব পক্ষের ভুলের কারনেই গানের বাজার মৃত। এখন অ্যামেচার শিল্পী আর মৌসুমী প্রযোজকদের জন্যই কিছু বিনিয়োগ ঢুকছে। ইউটিউব নির্ভরতার কারনে মূলত এই বিপর্যয়। বিশ্বের প্রায় দুইশো অ্যাপ বা পোর্টালে ডিজিটালি গান...
গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পরিকাঠামো

গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পরিকাঠামো

উপ-সম্পাদকীয়, শিরোনাম
তারেক এম. বরকতউল্লাহ বাংলা অভিধানে দুটি শব্দ আছে, অবকাঠামো ও পরিকাঠামো। সাধারণভাবে ‘অবকাঠামো’ বলতে ভবন, সেতু, বিদ্যুৎ কেন্দ্র, বাজার ইত্যাদি দৃশ্যমান স্থাপনাসমূহকে বুঝানো হয়ে থাকে আর ‘পরিকাঠামো’ শব্দটি দিয়ে “যে কোন কার্যক্রম বা ব্যবস্থার ভিত্তি” বুঝানো হয়ে থাকে। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন, ২০১৮ তে “গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পরিকাঠামো (Critical Information Infrastructure)” অর্থ সরকার কর্তৃক ঘোষিত এইরূপ কোনো বাহ্যিক বা ভার্চুয়াল তথ্য পরিকাঠামো যাহা কোনো তথ্য-উপাত্ত বা কোনো ইলেকট্রনিক তথ্য নিয়ন্ত্রণ, প্রক্রিয়াকরণ, সঞ্চারণ বা সংরক্ষণ করে এবং যাহা ক্ষতিগ্রস্থ বা সংকটাপন্ন হইলে – (অ) জননিরাপত্তা বা অর্থনৈতিক নিরাপত্তা বা জনস্বাস্থ্য, (আ) জাতীয় নিরাপত্তা বা রাষ্ট্রীয় অখন্ডতা বা সার্বভৌমত্বের, উপর ক্ষতিকর প্রভাব পড়িতে পারে। এখানে উল্লেখ্য যে, গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পরিকাঠামো (আইটি ইনফ্রাসট্রাকচার) এর মধ্য...
বিশ্বমন্দার প্রভাবে বাংলাদেশের অর্থনীতিতে সাত সংকট

বিশ্বমন্দার প্রভাবে বাংলাদেশের অর্থনীতিতে সাত সংকট

উপ-সম্পাদকীয়, শিরোনাম
রিপন শান করোনার সংকট কাটিয়ে ওঠার আগেই ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ সংকটের প্রভাবে বিশ্ব অর্থনীতিতে ফের মন্দার পদধ্বনি । বাংলাদেশসহ ৪৫টি দেশ খাদ্য সংকটে পড়তে যাচ্ছে।জাতিসংঘের সংস্থা ‘ফুড অ্যান্ড অ্যাগ্রিকালচার অর্গানাইজেশন- ফাও’ বলছে বিশ্বে দুর্ভিক্ষ আসছে। ক্রমেই পরিস্থিতি ওইদিকেই যাচ্ছে। বর্তমানে বাংলাদেশের অর্থনীতিতে ৭টি সংকট বিরাজ করছে। ডলার সংকট, জ্বালানির উচ্চমূল্য, অস্বাভাবিক মূল্যস্ফীতি, খাদ্য ঘাটতির শঙ্কা, জলবায়ু পরিবর্তন, যুদ্ধ ও করোনা পরিস্থিতি। বিশেষজ্ঞরা বলছেন- পরিস্থিতি মোকাবিলায় স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘমেয়াদি পদক্ষেপ নিতে হবে। বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ- সিপিডির মূল্যায়নে উঠে এসেছে এসব বিষয়। সংস্থাটি বলছে, বাংলাদেশে খাদ্যের দাম দক্ষিণ এশিয়ায় সবচেয়ে বেশি। উচ্চ মূল্যস্ফীতির কারণে ইতোমধ্যে দেশের মানুষ খাবার কমিয়ে দিয়েছে। পরিস্থিতি ধীরে ধীরে আরও ঘনীভূত হচ্...